× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২ মার্চ ২০২১, মঙ্গলবার

অবৈধভাবে বিভাগীয় প্রধান নিয়োগ: রসায়ন বিভাগের শিক্ষকদের কর্মবিরতি ঘোষণা

শিক্ষাঙ্গন

বেরোবি প্রতিনিধি
(২ মাস আগে) ডিসেম্বর ২৮, ২০২০, সোমবার, ৫:৫১ অপরাহ্ন

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) রসায়ন বিভাগে  আইন লঙ্ঘন করে বিভাগীয় প্রধান নিয়োগের অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করে কর্মবিরতির ঘোষণা দেন ওই বিভাগের শিক্ষকরা । সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের সামনে এ সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

এতে ঐ বিভাগের নয় শিক্ষকের মধ্যে সাত শিক্ষক স্বাক্ষরিত লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, জাতীয় সংসদে পাশকৃত বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় আইন মোতাবেক  কোন বিভাগে অধ্যাপক কর্মরত না থাকলে সহযোগী অধ্যাপক পদমর্যাদায় নিচে কারও বিভাগীয় প্রধান নিযুক্ত হওয়ার সুযোগ নেই। ওই বিভাগে জ্যেষ্ঠতম সহযোগী অধ্যাপক গত (১৩/০৬/২০২০) তারিখে বিভাগের প্রধান হিসেবে মেয়াদ পূর্ণ করেন। আইন মোতাবেক দ্বিতীয় জ্যেষ্ঠ সহযোগী অধ্যাপক পরবর্তী বিভাগীয় প্রধান  হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হবেন। কিন্তু গত (১৬/০৬/২০২০) তারিখে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আইন - বিধি লংঘন করে সহযোগী অধ্যাপক পদ মর্যাদার নিচের পদের শিক্ষককে রসায়ন বিভাগের বিভাগীয়  প্রধান হিসেবে নিয়োগ প্রদান  করে। এতে শিক্ষকদের একাডেমিক শৃঙখলা ভেঙ্গে পড়েছে।
বক্তব্যে আরো বলা হয়, আদালতে বিভাগীয় প্রধান পদে অবৈধ নিয়োগের বিরুদ্ধে রিট করা হয়।
রিটে বঞ্চিত শিক্ষককে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন মোতাবেক বিভাগীয় প্রধানের নিয়োগ প্রদানের নির্দেশনা প্রদান করেছে আদালত।

সংবাদ সম্মেলনে তারা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন ২০০৯ এর ৪৫ ধারা এবং ৩৯ (২) এর ১১ লঙ্ঘন করে রিটকারী বঞ্চিত শিক্ষকের সভাপতিত্বে চলমান পরিক্ষা কমিটি বাতিল করে বিভাগের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের একাডেমিক পরিক্রমা রুদ্ধ করে দিয়েছে। এতে প্রতিটি ব্যাচের শিক্ষার্থীরা একের পর এক একাডেমিক জটিলতায় পতিত হবে । কাজেই বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুযায়ী বিভাগীয় প্রধান নিয়োগ জরুরী। এ বর্তমান প্রশাসনের অনিয়ম, দুর্নীতি ও স্বেচ্ছাচারিতার বিরুদ্ধে আন্দোলনের অংশ হিসেবে কর্মবিরতির ঘোষণা দেন রসায়ন বিভাগের শিক্ষকরা।  আইন অনুযায়ী বিভাগীয় প্রধান নিয়োগ না হওয়া পর্যন্ত  এ কর্মসূচী পালন করবেন বলে ঘোষণা দেন তারা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন রসায়ন বিভাগের শিক্ষক এইচ. এম. তারিকুল ইসলাম, ড. বিজন মোহন চাকি, ড. মোঃ আব্দুল লতিফ,  মোঃ মনিরুজ্জামান খান, ড. মোঃ জাকির হোসেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর