× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২ মার্চ ২০২১, মঙ্গলবার

৩ চীনা কোম্পানিকে অপসারণ করছে নিউ ইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জ

দেশ বিদেশ

মানবজমিন ডেস্ক
২ জানুয়ারি ২০২১, শনিবার

চীনের সেনাবাহিনীর সঙ্গে যুক্ত হওয়ার অভিযোগে দেশটির ৩ টেলিযোগাযোগ কোম্পানিকে অপসারণ করছে নিউ ইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জ। কোম্পানিগুলো হচ্ছে- চায়না মোবাইল, চায়না টেলিকম এবং চায়না ইউনিকম হংকং। এগুলো এর আগেই ট্রাম্প প্রশাসনের টার্গেটে পড়েছিল। কোম্পানিগুলোর যে শেয়ার নিউ ইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জে রয়েছে তা বাতিলের কার্যক্রম এরই মধ্যে চালু হয়ে গেছে। এ খবর দিয়েছে বিবিসি।
খবরে বলা হয়েছে, কোম্পানিগুলো মূলত চীনে বসেই আয় করে থাকে এবং যুক্তরাষ্ট্রে তাদের কোনো কার্যক্রম নেই। তবে যুক্তরাষ্ট্রের এই নতুন ঘোষণাকে অনেকটা প্রতীকী পদক্ষেপ হিসেবে দেখা হচ্ছে। চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে চলছে তুমুল উত্তেজনা। তারই অংশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে তাদের শেয়ার বাতিল করা হচ্ছে।
এই কোম্পানিগুলো রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত এবং চীনে তাদের প্রভাব ব্যাপক। তবে যুক্তরাষ্ট্রে তাদের কার্যক্রম নেই।
চীনের যেসব কোম্পানি দেশটির সেনাবাহিনীর মালিকানায় রয়েছে কিংবা কোনো ধরনের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে সেসব কোম্পানিকে যুক্তরাষ্ট্রে নিষিদ্ধ করে একটি অর্ডারে স্বাক্ষর করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। এর ফলে মার্কিন বিনিয়োগকারীরা এসব কোম্পানি থেকে শেয়ার কিনতে বা বিক্রি করতে পারবে না। এর আগে পেন্টাগন প্রেসিডেন্টের কাছে চীনা কোম্পানির একটি তালিকা পাঠায়। এসব কোম্পানির মধ্যে রয়েছে- টিকটক, হুয়াওয়ে ও টেনসেন্ট। জবাবে চীন নিজেও একটি কালো তালিকা তৈরি করেছিল।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর