× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২২ জানুয়ারি ২০২১, শুক্রবার

অফিসে জায়গা কম তাই বাইরে কাজ করেন কর্মীরা

বাংলারজমিন

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি
১৩ জানুয়ারি ২০২১, বুধবার

স্থানের অভাবে ঝিনাইদহ সদর সমাজসেবা অফিসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা দুর্ভোগে পড়েছেন। মাত্র দুইটি রুমে ১৪ জন স্টাফকে কাজ করতে হয়। অফিসের জন্য স্টাফদের কাকুতি মিনতি কোনো কাজেই আসছে না। তবে কর্মকর্তারা বলছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিস সম্প্রসারিত হলে তখন স্থানের অভাব মিটে যাবে। সরজমিন দেখা গেছে, পাবলিক রিলেটেড এই অফিসে সর্বক্ষণ শতাধিক মানুষ সেবা নিতে আসেন। সেবা গ্রহীতারা অফিসে বসতে পারেন না। তাদের বাইরে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়। অনেক কর্মকর্তা কর্মচারীদেরই জায়গা হয় না, তার ওপর সেবাগ্রহীতারা অনেকটা গোদের ওপর বিষফোঁড়ার মতো।
ঝিনাইদহ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অফিসের নিচে দুইটি ছোট রুমে সদর উপজেলা সমাজসেবা অফিসারের কক্ষ। এরমধ্যে একটি রুম উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তার। বাকি একটি রুমে ইউনিয়ন সমাজকর্মীসহ ১৩ জনকে গাদাগাদি করে বসতে হয়। স্থান না পেয়ে কেউ বারান্দায় বসে কাজ করেন। এতে অফিসিয়াল কাজকর্ম ব্যাহত হয়। অনেক সময় সেবাগ্রহীতাদের ভিড়ে কাজ করতে পারেন না সমাজসেবা কর্মীরা। তাই স্থান না পেয়ে ভবনের বাইরে টেবিল চেয়ার পেতে সেবা গ্রহীতাদের সেবা দিতে দেখা যায়। স্থানের এই অভাব বছরের পর বছর চলে আসলেও উপর মহলের পক্ষ থেকে তেমন কোনো কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না। ফলে দুই কক্ষে পরিচালিত হচ্ছে কাজকর্ম। বিষয়টি নিয়ে ঝিনাইদহ জেলা সমাজসেবা অফিসের উপ-পরিচালক আব্দুল লতিফ শেখ গতকাল বলেন, আমরা সাধ্যমতো চেষ্টা করছি সমস্যা সমাধান করার। এই মুহূর্তে নতুন অফিস নেয়াও সম্ভব হচ্ছে না। তিনি বলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিস সম্প্রসারিত হলে তখন স্থানের অভাব মিটে যাবে বলে মনে করছি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর