× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২২ জানুয়ারি ২০২১, শুক্রবার
কলকাতা কথকতা

শোভন মমতাকে আক্রমণ করতেই পরকীয়া তত্ত্বকে তুলে ধরলেন স্ত্রী রত্না

কলকাতা কথকতা

জয়ন্ত চক্রবর্তী, কলকাতা
(১ সপ্তাহ আগে) জানুয়ারি ১৩, ২০২১, বুধবার, ১০:১৬ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ আপডেট: ৫:২১ অপরাহ্ন

বিজেপিতে যোগদান করার প্রায় দুবছর পরে বান্ধবী বৈশাখী বন্দোপাধ্যায়কে পাশে নিয়ে দলীয় পদযাত্রায় প্রথম অংশ নিলেন কলকাতার প্রাক্তন তৃণমূলী মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়। শুধু অংশ নেওয়াই নয়, সুপ্রিমো মমতা বন্দোপাধ্যায়কে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ করে বললেন, মমতাদি পথভ্রষ্ট হওয়ার পরই তিনি তৃণমূলের মন্ত্রিত্ব,  মেয়র পদ ছেঁড়া জুতোর মত ছেড়ে বিজেপিতে চলে আসেন। শোভন চট্টোপাধ্যায় এর এই কথা শুনে তীব্র প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন শোভনের স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেছেন, মমতা বন্দোপাধ্যায় এর সঙ্গে ৩৬ বছরের সম্পর্ক শোভন চট্টোপাধ্যায়ের। মমতাদি ছাত্রনেতাকে কাউন্সিলর, মন্ত্রী, মেয়র বানিয়েছেন, ওর মুখে মমতাদির নিন্দা মানায় না।  অবশ্য যিনি স্ত্রী, ছেলেমেয়েকে ছেড়ে অন্য এক নারীর প্রেমে হাবুডুবু খেয়ে রয়েছেন তিনি সব পারেন। তিনি ওই নারীর প্রেমে পড়ে ছেঁড়া জুতোর মতো সংসার ছেড়েছেন, সন্তানদের ছেড়েছেন। ওই নারীর সঙ্গে থাকার জন্যে মন্ত্রিত্বও ছেড়েছেন।  কারণ মমতা বন্দোপাধ্যায় বলেছিলেন, হয় রাজনীতি নয় ওই নারীকে ছাড়তে হবে। রত্না চট্টোপাধ্যায় নাম করেননি।
কিন্তু তাঁর উল্লেখিত নারী যে বৈশাখী বন্দোপাধ্যায় তা বলে দেওয়ার অপেক্ষা রাখেনা। শোভন চট্টোপাধ্যায় এই বৈশাখী বন্দোপাধ্যায় এর সঙ্গেই থাকেন দক্ষিণ কলকাতার গোলপার্কের কাছে এক আবাসনে। শোভন চট্টোপাধ্যায় যখন ছাত্র রাজনীতিতে তখনই মহেশতলা পৌরসভার চেয়ারম্যান দুলাল দাস ও বিধায়ক  অধুনা প্রয়াত কস্তুরী দাসের কন্যা রত্নার সঙ্গে তাঁর প্ৰেম যা বিয়েতে পরিণতি পায়। শোভন রত্নার এক ছেলে এক মেয়ে। কলকাতার মেয়র থাকাকালীন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মনোজিৎ মন্ডলের স্ত্রী অধ্যাপিকা বৈশাখী বন্দোপাধ্যায় এর সঙ্গে শোভনের পরিচয় এবং প্ৰেম। একসঙ্গে থাকলেও সেই প্রেমের কথা প্রকাশ্যে বলেননি শোভন কিংবা বৈশাখী। রত্না বলছেন, শোভন চট্টোপাধ্যায়কে কেন্দ্র করে ওই নারী রাজনৈতিক উচ্চাকাঙ্খা পূরণ করার চেষ্টা করছেন। শোভন বুঝতে পারবেন যখন ওই নারী তাঁকে ছেঁড়া জুতোর মতো পরিত্যাগ করবেন। বঙ্গ রাজনীতি দীর্ঘদিন হল এই এক ফুল দো মালির গল্পে বুঁদ। ভোট আসতেই প্রেমের এই রাজনৈতিক কাহিনি ফের পল্লবিত হচ্ছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর