× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৬ মার্চ ২০২১, শনিবার

পেলোসির কম্পিউটার রাশিয়ার কাছে বিক্রির পরিকল্পনা!

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) জানুয়ারি ১৮, ২০২১, সোমবার, ৫:২৪ অপরাহ্ন

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটল হিলে নারকীয় হামলার সময় প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির অফিস থেকে একটি ল্যাপটপ চুরি করেছেন সম্ভবত একজন নারী। ল্যাপটপ চুরির এ খবর পুরনো। কিন্তু কেন এই ল্যাপটপ চুরি করা হয়েছে? এর উত্তর- ওই ল্যাপটপটি রাশিয়ার কাছে বিক্রি করে দেয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ হয়েছিল বলে মনে করা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে রাশিয়া কানেকশন নিয়ে তার ক্ষমতা গ্রহণের প্রথম থেকেই আলোচনা। এ আলোচনা, বিতর্কের কারণে ট্রাম্প প্রশাসনের অনেক বাঘা বাঘা কর্মকর্তাকে কতল হতে হয়েছে। কিন্তু ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে গেছেন ট্রাম্প। এখন আবার ন্যান্সি পেলোসির অফিস থেকে লুট করে নেয়া ল্যাপটপ রাশিয়ার কাছে বিক্রি করে দেয়ার সম্ভাব্যতা নিয়ে তিক্ত বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন সিএনএন।
এতে বলা হয়েছে, এক নারীর বিরুদ্ধে নতুন করে ফৌজদারি মামলা হয়েছে মার্কিন আদালতে। ওই অভিযোগে বলা হয়েছে, ওই নারী পেলোসির অফিসের লুট করা ল্যাপটপ রাশিয়ার কাছে বিক্রি করে দেয়ার চেষ্টা করেছেন। এমনটা নোট দিয়েছে গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই। এফবিআই আদালতে বলেছে, তারা এখনও বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করছে। এ মামলায় এক ব্যক্তি বলেছেন, ওই নারীর নাম রিলে জুন উইলিয়ামস। তিনি পেনসিলভ্যানিয়ার। তার সঙ্গে উইলিয়ামসের রোমান্টিক সম্পর্ক ছিল এক সময়। তিনিই ক্যাপিটল ভবনে হামলা চালানোর ভিডিওতে উইলিয়ামসকে শনাক্ত করেছেন। এ অভিযোগে উইলিয়ামসকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে রোববার। মামলায় বলা হয়েছে উইলিয়ামসকে পেলোসির অফিস থেকে একটি ল্যাপটপ অথবা হার্ডড্রাইভ নিয়ে যেতে দেখা গেছে ভিডিওতে। তিনি ওই কম্পিউটার ডিভাইস রাশিয়ায় অবস্থানরত তার এক বন্ধুর কাছে পাঠাতে চেয়েছিলেন। তার ওই বন্ধু তখন ওই ডিভাইসটি রাশিয়ার পররাষ্ট্র বিষয়ক গোয়েন্দা সংস্থা এসভিআরের কাছে বিক্রি করে দেয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন। অজ্ঞাত কারণে, এটা রাশিয়ার হাতে তুলে দেয়ার পরিকল্পনা করেছিল তারা। ওই ব্যক্তি আরো বলেছেন, এখনও উইলিয়ামসের কাছে ওই কম্পিউটার ডিভাইস আছে অথবা তিনি তা ধ্বংস করে ফেলেছেন। তবে উইলিয়ামসের বিরুদ্ধে এখনও কোনো চুরির অভিযোগ আনা হয়নি। তার বিরুদ্ধে শুধু ক্যাপিটল ভবনে প্রবেশ এবং সেখানে বিশৃংখলা সৃষ্টির অভিযোগ আনা হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর