× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, রবিবার

বাংলাদেশি ২০ জেলেকে ধরে নিয়ে নির্যাতনের পর ছেড়ে দিল মিয়ানমারের নৌবাহিনী

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক
(১ মাস আগে) জানুয়ারি ২১, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৩:৩৭ অপরাহ্ন

বঙ্গোপসাগর থেকে বাংলাদেশি ২০ জেলেকে তুলে নিয়ে যাওয়ার পর তাদের নির্যাতন করে ছেড়ে দিয়েছে মিয়ানমারের নৌবাহিনী। কক্সবাজারের সেন্টমার্টিন দ্বীপের কাছে চারটি বোটে করে মাছ ধরার সময় এসব জেলেকে তুলে নিয়ে যায় তারা । বুধবার সকাল ১১টার দিকে বঙ্গোপসাগরের সীতাপাহাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এসব জেলের সবার বসতি শাহপরীর দ্বীপে।

টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মোহাম্মদ নূরুল আমিন বলেছেন, যে চারটি বোটে করে জেলেরা মাছ ধরছিলেন তার একটির মালিক কবির মাঝির ছেলে আমির হোসেন। একটির মালিক মোহাম্মদ হোসেনের ছেলে আবুল বাশার ওরফে বাইলিয়া। আরেকটি বোটের মালিক মকবুল আহমেদের ছেলে অলি আহমেদ। অন্য একটির মালিক আমির হোসেনের ছেলে আমিরুল ইসলাম।


ইউপি সদস্য মোহাম্মদ নূরুল আমিন জানান, ওই বোটগুলোর মালিকরা তাকে ফোন করে এ বিষয়ে অবহিত করেছেন। জেলেদের আটক করার পর মিয়ানমারের নৌবাহিনীর সদস্যরা প্রহার করে এবং তিনটি বোট থেকে মাছধরা জাল ছিনিয়ে নেয়।

বিজিবির টেকনাফ-২ ব্যাটালিয়ানের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল ফয়সল হাসান খান জানান, বুধবার রাত ১২টার পর সেই জেলেরা ছাড়া পেয়ে টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপে নিজেদের বাড়িতে ফিরেছেন। টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীর দ্বীপের স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও লোকজন অভিযোগ করেছেন, মিয়ানমারের নৌবাহিনী ওই ২০ জেলেকে ছেড়ে দেয়ার আগে শারীরিক নির্যাতন চালিয়েছে।

এর আগে গত ১০ই নভেম্বর মিয়ানমারের বর্ডার গার্ড পুলিশের সদস্যরা টেকনাফ উপজেলার নাফ নদী থেকে বাংলাদেশি ৯ জেলেকে তুলে নিয়ে যায়। এরপর বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের সঙ্গে ফ্লাগ বৈঠকের মাধ্যমে ২৩ দিন পর তাদেরকে ফিরিয়ে দেয় মিয়ানমার।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Eng mounsur alam
২১ জানুয়ারি ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৭:৫০

বাংলাদেশ সীমান্ত সংরক্ষণ করুন

M.Hassan
২১ জানুয়ারি ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৫:১৪

Bangladesh is now spineless country. So all India and Myanmar continuously torturing our nation without any reasons in the boarder, but Bangladesh don't have spine to strongly answer to them for their criminal work.

জাফর আহমেদ
২১ জানুয়ারি ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৩:৫৪

বাংলাদেশের মানুষের জম্ম হয়েছে দেশের ভেতরে ও বাইরে নির্যাতনের শিকার হ‌ওয়ার জন্য, মে দেশের সরকার ও প্রতিরক্ষা বাহিনী ভীতু মেরুদন্ড হীন, সেদেশের জনগণের কোনো মূল্য নেই,

Faruque Ahmed
২১ জানুয়ারি ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৪:১৫

বাংলাদেশী প্রহরী কী করেছে? তারা বাংলাদেশ এলাকায় এসে বাংলাদেশের জনগণকে নিয়ে যায়। তারা কি নিজের চুল নিজে ছিঁড়ে ফেলে? অভ্যন্তরীণ দেশের জন্য ব্যস্ত বাংলাদেশ বিজিপি। তবে তাদের উচিত প্রধান কাজকে প্রাধান্য দেওয়া। 1) বাংলাদেশ সীমান্ত সংরক্ষণ করুন। ২) সীমান্তের পাশে বাংলাদেশিদের বাঁচান

সৈয়দ সরওয়ার উদ্দিন আ
২১ জানুয়ারি ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৩:৪৮

মিয়ানমারের সামরিক জান্তা সরকারের আশির্বাদপুষ্ট/পুতুল সরকারের নৌবাহিনী/ পুলিশের দৃষ্টতা মেনে নেওয়া যায়না। একটি স্বাধীন দেশের জেলেদেরকে এভাবে নির্যাতন বাংলাদেশ সরকারের নতজানু পররাষ্ট্রনীতির পরিচয় বহন করে। অবিলম্বে তাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে না পারলে ভারত সীমান্তের মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে।

অন্যান্য খবর