× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৯ মার্চ ২০২১, মঙ্গলবার

কাশিমপুর কারাগারে হলমার্ক হোতার নারীসঙ্গ, তদন্ত কমিটি

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর থেকে
(১ মাস আগে) জানুয়ারি ২২, ২০২১, শুক্রবার, ৯:১৮ অপরাহ্ন

গাজীপুরে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১এ কারাবিধি লঙ্ঘন করে বন্দির সাথে এক নারীর সাক্ষাতের অভিযোগ উঠেছে। হলমার্কের মহাব্যবস্থাপক তুষার আহমদের সঙ্গে কারা কর্মকর্তাদের কক্ষে এ নারীর সাক্ষাতের অভিযোগ ওঠে। অভিযুক্ত তুষার হলমার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর মাহমুদের ভায়রা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কারা সূত্র জানায়, গত ৬ জানুয়ারি কারাগারের প্রবেশের মাঝে কর্মকর্তাদের অফিস এলাকায় কালো রংয়ের জামা কাপড় পড়ে ঘুরাফেরা করেন তুষার আহমেদ। তিনি আসার কিছু সময় পর কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার রত্না রায় ও ডেপুটি জেলার সাকলাইন সেখানে আসেন। এসময় বাইরে থেকে সালোয়ার কামিজ পড়া এক নারী সেখানে প্রবেশ করেন। দুপুর ১২টা ৫৫ মিনিটে অপর দুই যুবকের সঙ্গে ওই নারী কারাগারের কর্মকর্তাদের কক্ষ এলাকায় প্রবেশ করেন। তাকে সেখানে উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি জেলার সাকলায়েন। ওই নারী সেখানে প্রবেশ করার পর অফিস থেকে বেরিয়ে যান ডেপুটি জেলার সাকলায়েন।
আনুমানিক ১০ মিনিট পর কারাগারে বন্দি তুষার আহমদকে প্রবেশ করতে দেখা যায়।

গাজীপুর জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ওই ঘটনায় গত ১২ জানুয়ারি গাজীপুর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবুল কালামকে প্রধান করে গাজীপুরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উন্মে হাবিবা ফারজানা ও ওয়াসিউজ্জামান চৌধুরীকে নিয়ে তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটিটি গঠন করা হয়।

এছাড়া ২১ জানুয়ারি অতিরিক্ত কারা মহাপরিদর্শক আবরার হোসেনকে প্রধান করে উপ সচিব (সুরক্ষা বিভাগ) আবু সাঈদ মোল্লাহ ও ডিআইজি (ময়মনসিংহ বিভাগ) জাহাঙ্গীর কবিরকে সদস্য করে আরো একটি তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবুল কালাম বলেন, কারাগারের সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজটি আমরা দেখেছি। এ বিষয়ে তদন্ত চলমান রয়েছে। এ ব্যাপারে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১ এর জেল সুপার রতœা রায়কে একাধিকবার ফোন করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেনি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Shakawet
২৩ জানুয়ারি ২০২১, শনিবার, ১:৫৫

বাহ ! দারুণ তো। কারাগারে ফুলশয‍্যা। এটাই বাংলাদেশ। টাকা দিলে খুন ধর্ষণ সব মাফ। হায় আফসোস। হত দরিদ্রের জন্যেই বাংলাদেশের বিচার।

Hossain
২২ জানুয়ারি ২০২১, শুক্রবার, ৬:২১

বাহ ! দারুণ তো। কারাগারে ফুলশয‍্যা। এটাই বাংলাদেশ। টাকা দিলে খুন ধর্ষণ সব মাফ। হায় আফসোস। হত দরিদ্রের জন্যেই বাংলাদেশের বিচার।

Md Yousuf Ali Mia
২৩ জানুয়ারি ২০২১, শনিবার, ৫:৫৯

Please find out who is this lady.

দয়াল মাসুদ
২২ জানুয়ারি ২০২১, শুক্রবার, ১:১১

জানি এই লিখা পড়েই এক শ্রেণির মানুষ বলবে আমি নারী বিদ্বেষী অথবা সাম্প্রদায়িক ! তবে বিবেকের তাড়নায় কিছু না লিখেও... ১. যেহেতু নারী জাতি বলতেই মাত্রাতিরিক্ত একটা আবেগের বিষয় পরিলক্ষিত হয়, তাই নারীদের এমন গুরুত্বপূর্ণ পদে অধিষ্ঠিত না করাটাই বাঞ্চনীয়। ২. এদেশে মুসলিম ব‍্যতীত সরকারি অফিস-আদালত, ব‍্যাংক- বীমা সহ যে কোন গুরুত্বপূর্ণ পদে পদায়ন করা মানেই দেশটাকে বিপদে ফেলা। আরো সহজ করে বললে খাল কেটে কুমির আনি/নিজের পায়ে নিজেই কুড়াল মারার শামিল। উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্র সহ আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ইন্ডিয়া এই নীতিমালায় বিশ্বাসী হলেও আমরা নারীর ক্ষমতায়ন এবং অসাম্প্রদায়িকতার দোহাই দিয়ে সরলতা দেখাতে গিয়ে এই দুটি জায়গাতে বারবার বিব্রত হওয়া সহ নানাবিধ মাশুল দিচ্ছি।

ওমর ফারুক
২২ জানুয়ারি ২০২১, শুক্রবার, ১১:২০

যে দেশে সমাজসেবা অধিদফতরের প্রতিষ্ঠান সরকারি শিশু পরিবার, দে্িদ্বার, কুমিল্লার শিশু পরিবার সংযুক্ত প্রবিণ নিবাসের প্রতিবন্ধী প্রবিণ নিবাসীর বিরুদ্ধে মিথ্যা ষড়যন্ত্র করে আশ্রয়হীন নিবাসীকে আশ্রয় হতে বের করার ষড়যন্ত্র হয় সেদেশে অনিয়ম ই নিয়ম হচ্ছে। মানবতা কোথায়? মানবতার জননীর নজরে এগুলো ধরা পড়ে না।

shiblik
২২ জানুয়ারি ২০২১, শুক্রবার, ১০:৪৩

বর্তমান প্রেক্ষাপটে এসব ঘটনা কিছু না। তবে কে বা কাঁহারা এই ভিডিও ফাঁস করলো? কেন করলো?

Kazi
২২ জানুয়ারি ২০২১, শুক্রবার, ৮:২৭

কি আর বলব। যে দেশে সরকারী কর্মচারি কর্মকর্তাদের অনিয়ম ই নিয়ম ও রীতিতে পরিণত ।

অন্যান্য খবর