× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৭ মার্চ ২০২১, রবিবার

স্বামীর বন্ধুকে বাসায় ডাকেন মনি...

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার
(১ মাস আগে) জানুয়ারি ২৪, ২০২১, রবিবার, ১২:১৪ অপরাহ্ন
প্রতীকী ছবি

রাত বাড়ছে। কিন্তু পুরুষ মানুষটির যাওয়ার নাম নেই। মনির বেশ বিরক্ত লাগছে। ছোট্ট একটি বাসা। মাত্র দুটি রুম। এরমধ্যেই স্বামী আজাদের ওই বন্ধু প্রায় দু’ঘন্টা হলো বসে আছে। মনির স্বামী আজাদ নিজেই তাকে বারবার বেড রুমে ডেকে নিয়ে আসছে। অন্যান্য দিনের মতোই আজাদ নেশাগ্রস্ত।
মনিকে চোখা রাঙানি দিচ্ছেন বারবার। বলছেন, আমার এই বন্ধুটি বেশ ভালো। তুমি ওর সঙ্গে গল্প করো। আমি কাজটা শেষ করে আসছি।
মনি বাধা দেন। এতো রাতে কিসের কাজ। তবুও বাইরে থেকে দরজাটা বন্ধ করে চলে যান আজাদ। ফিরেন ঘন্টা খানেক পরে। এটা অবশ্য নতুন না। এর আগেও কয়েকবার এরকম ঘটনা ঘটিয়েছেন আজাদ। মনি পা জড়িয়ে ধরে কেঁদেছেন। এভাবে নিজের বউকে অন্যের কাছে তোলে না দিতে অনুনয় করেছেন। কোনো কথা শুনেননি আজাদ। উল্টো চোখ রক্তবর্ণ করে শাসিয়েছেন। বলেছেন, এছাড়া ভাত জুটবে না। সে যা বলে তাই করতে হবে। এ নিয়ে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে গায়ে হাত তোলেছেন পর্যন্ত।
আজাদের বন্ধু পাশের রুমে। লোকটা সবই বুঝতে পারে। তবু তারও মনুষ্যত্ববোধ জাগে না। বারবার ব্যর্থ হয়ে ফিরে যান। আবার আসেন। মনিকে তিনি বলেছেন, যে কোনোভাবেই হোক আমি আপনাকে চাই। কখনও কখনও পাশের রুমে রাত কাটান তিনি। আজাদের সংসার চলে তার টাকায়।
মনি ভেবে পাচ্ছিলেন না কি করবেন। ডিভোর্সী নারীকে সমাজ ভালো চোখে দেখে না। এমনকি নিজের পরিবারও। কেউ হয়তো বিশ্বাস করতে চাইবে না আজাদ তার সঙ্গে কী করছে। বাধ্য হয়েই আজাদের বন্ধুকে মেনে নেন মনি। অবশ্য তার আগে বন্ধুতা গড়ে তোলেন। এবার নিজেই রাতবিরাতে আজাদের বন্ধুকে বাসায় ডেকে আনেন।
স্বামী আজাদ থাকেন পাশের রুমে। আর তার স্ত্রীর মনির সঙ্গে রাত্রিযাপন করেন তার বন্ধু। মাঝে-মধ্যে স্বামীর ওই বন্ধুর সঙ্গে বেড়াতে যান মনি। এভাবে কয়েক মাস। শারীরিক সম্পর্ক আর বন্ধুতা থেকে সম্পর্ক গড়ায় প্রেমে। সংসারে এখন অভাব নেই। আজাদের বন্ধুর টাকায় বাসা ভাড়া, নিত্যপণ্য কেনা থেকে চলে সব।
এরমধ্যেই হঠাৎ মনি নিখোঁজ। খোঁজ নেই আজাদের ওই বন্ধুরও। কয়েদিনের মধ্যে ডিভোর্স লেটার পান আজাদ। কথাগুলো বলছিলেন আজাদ (ছদ্মনাম) নামের চল্লিশ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি। রাজধানীর মোহাম্মদপুরের একটি মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন তিনি। আজাদ জানান, শেষ পর্যন্ত মনি তার ওই বন্ধুকে বিয়ে করেছেন। বন্ধুটি ব্যবসায়ী। তাদের এক সন্তানও হয়েছে। মাদক কেড়ে নিয়েছে আজাদের স্ত্রী, সংসার সব।
আজাদ জানান, একটি বেসরকারি কোম্পানীতে বিক্রয় প্রতিনিধির কাজ করতেন তিনি। শুরুতে সিগারেট ও গাঁজায় আসক্তি ছিলো। কয়েক বন্ধুর পাল্লায় পড়ে মাঝে মধ্যেই ইয়াবার আসরে যোগ দিতেন কল্যাণপুরের এক বাসায়। ধীরে ধীরে ইয়াবা তাকে গ্রাস করতে থাকে। কর্মক্ষেত্রে টার্গেট পূরণে বারবার ব্যর্থ। কাজে অমনোযোগী। চাকরি চলে যায়। স্ত্রী মনি গৃহবধূ। ধারদেনা করে সংসার চলছিলো। বরিশালের গ্রামের বাড়ি থেকেও টাকা এনে সংসার চালাচ্ছিলেন। কিন্তু এভাবে আর পারছিলেন না। নিজের স্ত্রীকে ঠেলে দিয়েছিলেন অনৈতিক পথে। আজাদ কথা বলছিলেন আর চোখ দিয়ে জল গড়িয়ে পড়ছিলো।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Shahed
২৬ জানুয়ারি ২০২১, মঙ্গলবার, ৭:২১

ইসলামের আদর্শ থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার কারেণেই জাতির এই অবস্থা।এর কারণেই আস্তে আস্তে বিভিন্ন ধরণের নেশা,চুরি,ডাকাতি,ছিনতাই সর্বোপরি যতসব অনৈতিক কার্যকলাপে জড়িয়ে পড়ে।অতএব ইসলামের অনুশাষন ছাড়া কখনোই পরিচ্ছন্ন,সুন্দর আদর্শ জীবন গঠন সম্ভবপর নহে।

বাহাউদ্দীন বাবলু
২৪ জানুয়ারি ২০২১, রবিবার, ৫:৫৭

মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে হলে মাদকের ডিলারদের হত্যা করতে হবে।

Mozibul Islam
২৪ জানুয়ারি ২০২১, রবিবার, ১২:৪১

It is the best example how to make waste smooth peaceful life if not follow social and religious culture. Please be careful our all youngster and other if anyone doesn't not wish destroy Dunia and Akhirah.

khokon
২৪ জানুয়ারি ২০২১, রবিবার, ১০:০৭

It is poorest countries love story. If there is good director then some body can make good film.

Md. Shahid ullah
২৪ জানুয়ারি ২০২১, রবিবার, ৭:৩৩

অনৈতক সম্পদশালীকে না বলে সৎ ও নৈতিকদের নিয়ে ভাবা উচিত।

মোঃ আবদুল খালেক
২৪ জানুয়ারি ২০২১, রবিবার, ২:৫১

জীবনে যাকিছু করার বুঝেশুনে করা উচিৎ।

Taposh Mridha
২৪ জানুয়ারি ২০২১, রবিবার, ৩:৩৬

একদম ঠিক।

MAJUMDER SANTOSH
২৪ জানুয়ারি ২০২১, রবিবার, ৩:২১

মাদক নামের ঘাতক কিভাবে ধ্বংস করে তার উদাহরণ এই ঘটনা ।

মোঃ মনিরুজ্জামান
২৪ জানুয়ারি ২০২১, রবিবার, ১:২০

হয়ত ঐ সংসারেও সে বেশী দিন স্থায়ী হবে না, ছেলেটার (2য় স্বামীর) নেশা কেটে গেলে আবারও পরিত্যাক্ত হবে

MOHAMMED ABDUL LATIF
২৪ জানুয়ারি ২০২১, রবিবার, ১:২৫

মাদক নামের ঘাতক সমাজ ধ্বংস করে দিচ্ছে কালক্ষ্যাপন না করে এর বিরুধ্বে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে ।

Kazi
২৩ জানুয়ারি ২০২১, শনিবার, ১১:৫৫

শিখার ইচ্ছা থাকলে ভাল খারাপ সব ঘটনা থেকে শিক্ষা নেওয়া যায়। মাদক ও অসৎ সঙ্গ কিভাবে ধ্বংস করে তার উদাহরণ এই ঘটনা । অতএব সব যুবক যুবতী সাবধান ঁ

অন্যান্য খবর