× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৭ অক্টোবর ২০২১, রবিবার , ২ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

টিকা নিলেই মিলবে পিৎজা

রকমারি

নিজস্ব সংবাদদাতা
২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১, রবিবার
সর্বশেষ আপডেট: ১০:৪৪ পূর্বাহ্ন

মানুষের মাথায় কত ধরনের বুদ্ধি আসে। কথায় আছে বুদ্ধিং যস্য বলং তস্য। ইজরায়েলের এক অবাক করা ঘটনা এবার সবার সামনে এল। রয়টার্স সূত্রে খবর, স্থানীয় রেস্টুরেন্ট সংস্থাগুলির সঙ্গে একটি চুক্তি সই করেছে ইজরায়েল সরকার। সেখানে বলা হয়েছে দেশের যে কটি স্থানে করোনা টিকা দেয়া হবে সেখানে তারা যেন খাওয়া-দাওয়ার একটি ব্যবস্থা রাখেন। যেমন কথা তেমন কাজ। সাধারন মানুষের কথা ভেবে ইজরায়েলের করোনা কেন্দ্রের পাশেই তৈরি হয়ে গেল পিৎজা হাট। দ্রুত টিকাকরণের জন্য এই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ইজরায়েল প্রশাসন।


যে সকল ব্যক্তি করোনা টিকা গ্রহণ করছেন সে বেরিয়ে এসে মনের সুখে পিৎজা খেয়েই বাড়ি ফিরছেন। টিকা নিতে আসা এক ব্যক্তি জানিয়েছেন, করোনার টিকা নিতে এসে তিনি বেশ ভীত ছিলেন। তবে টিকাকরণের পর পিৎজা এবং কফি খেয়ে তিনি বেশ আনন্দিত। ইজরায়েল সরকার জানিয়েছে এই চিন্তাভাবনাটি বেশ ফলপ্রসূ। তাই তারা আগামীদিনে আরো বেশি টিকাকরণ কেন্দ্র করবেন। প্রতিটি স্থানেই থাকবে এই ধরনের খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা। আপাতত সেখানকার প্রায় ৪৩ শতাংশ মানুষেরই টিকাকরণ হয়ে গিয়েছে। ফাইজারের টিকা নিয়ে তেমন কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও দেখা যায়নি সেখানে। ইজরায়েল সরকার ৬ লাখ টিকা তাদের ঘরে মজুত করেছে। এই টিকা দ্রুত দেয়ার কাজও চলছে। খাদ্য এবং পানীয়ের সঙ্গে টিকা যদি জুড়ে দেওয়া হয় তাহলে তা একটু অন্য মাত্রা পাবে। টিকাকরণের পর একটু খাবারের স্বাদ পেয়ে যারপরনাই খুশি ইজরায়েলবাসী।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর