× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৭ এপ্রিল ২০২১, শনিবার

বাংলা শিখিয়েছে বাঘের বাচ্চার মতো লড়বি, বিড়াল দেখে ভয় পাবি না: মমতা

ভারত


(১ মাস আগে) ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২১, রবিবার, ১০:৫২ অপরাহ্ন

পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনের আগে ভাতিজা তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রীকে সিবিআই এর নোটিশ প্রসঙ্গে নাম না করে কেন্দ্রকে আক্রমণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রবিবার বিকেলে দক্ষিণ কলকাতার দেশপ্রিয় পার্কে সরকারি অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘ধমকানি-চমকানি আর জেল-টেল দেখিয়ে প্লিজ আমাদের ভয় দেখাবেন না। এসব আমরা অনেকদিন আগে পার হয়ে এসেছি। বন্দুকের সঙ্গে যারা লড়াই করে এসেছি তারা আবার নেংটি ইঁদুরের সঙ্গে লড়াই করতে ভয় পাবো কেন?' আউটলুক ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে একথা বলা হয়।

মমতা বলেন, ‘চিরকাল আমি একটা জিনিস দেখছি। বাংলা রাজ্যটার প্রতি বঞ্চনার একটা ভাব। বিমাতৃসুলভ একটা আচরণ। আর যদি বাংলার কেউ বড় হয়ে যায় তাকে নীচে টেনে নামানো। তার জন্য নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বোস, শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়, রামকৃষ্ণ, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাস, রাজা রামমোহন রায় কাউকে রেয়াত করা হয়নি।
এ জিনিস কেন হবে’?

দিল্লির বিরুদ্ধে বাংলার ওপর আগ্রাসনের অভিযোগ তুলে মমতা বলেন, ‘বাংলা মানে সব থেকে খারাপ, এই একটা অ্যাটিটিউড, পারসেপশন সো ব্যাড। বাঙ্গাল বলেছে, কাঙ্গাল বলেছে, কত কী বলে বেড়াচ্ছে। আর আমি তো শুনেছি কখনও কখনও বলে বেড়াচ্ছে দিল্লির কিছু নেতা, বাঙালিদের মেরুদণ্ড কী করে ভেঙে দিতে হয় আমি জানি। আমি বলি, আসুন না, একটু চেষ্টা করে দেখুন না। অনেকবার তো চেষ্টা করেছেন’।

তৃণমূলনেত্রী মমতা প্রতিজ্ঞা করেন, ‘ভাষা দিবসে আমি আপনাদের সামনে প্রতিজ্ঞা করছি। যতদিন আমার দেহে প্রাণ থাকবে, কোনও ধমকানি – চমকানিকে ভয় পাই না, এবং পাবোও না। আমাদের মেরুদন্ড ভেঙে দেওয়া অত সহজ নয়। আমাদের চোখ উপড়ে দেওয়াও অত সহজ নয়। আমাদের জাতিটাকে বিস্মৃত করিয়ে দেওয়াটাও অত সহজ নয়’।

তার দাবি, ‘আমাকে এই বাংলা শিখিয়েছে বীরের মতো লড়বি। বাঘের বাচ্চার মতো লড়বি। বাঘের বাচ্চা যেন বিড়ালকে দেখে ভয় না পায়’।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Mahmud
২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১, সোমবার, ১:০১

I am dreaming of a future Bangladesh consisting of today's Bangladesh , West Bengal and seven eastern Indian states called "Seven Sisters". West Bengal and these seven states have been neglected by India since 1947. Due to it's geographical location these seven states will never get due share of central Indian government fund for development. With Bangladesh emerging very fast and economy getting stronger , these seven states can benefit most by joining with Bangladesh along with West Bengal. It may sound unrealistic to many at this moment but when they will see the rapid development of Bangladesh changing the livelihood of it's people these states might realize their deprivation by staying within India.

Mahmud
২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১, সোমবার, ১০:৫৬

West Bengal was always neglected and will remain neglected. We share the same language , culture and history. Best for you will be to separate from India and join with Bangladesh to create one united non-communal Bangladesh. Bangladesh is developing very fast and you can also reap that benefit if you join with us.

Shahid Khndker
২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১, সোমবার, ১:৪৫

দিদি, আসুন, ভারত ত্যগ করুন, আমরা যে ভাবে পিন্ডি ত্যগ করেছিলাম , আপনারাও দিল্লী ত্যগ কোরে আমাদের বাংলাদেশের সাথে যুক্ত হউন। আসুন আমরা একটা অসাম্প্রদায়িক , প্রগতিশীল শক্তিশালী এবং সমৃদ্ধশালী বৃহত্তর বাংলাদেশ গড়ে তূলি । পারবেন?

Rasu
২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১, রবিবার, ১১:৫৪

দিদি; এত কিহু বোঝে আর এটা বুঝল না কেন্দ্র কেন বাংলাকে বঞ্চনার চোখে দেখে!?! ক্লুঃ ওই বাংলার সাথে এই বাংলার ভাষার সম্পর্ক আছে; ভাষা উজ্জীবিত করে; ভাষা গর্ব বাড়ায়। আর সেটা; এক বাংলা থেকে আর এক বাংলায় ফ্লো করতে পারে।।

অন্যান্য খবর