× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৯ এপ্রিল ২০২১, সোমবার

যে কারণে সৈয়দ আবুল মকসুদ দুই খণ্ড সেলাই ছাড়া সাদা চাদর পরতেন

অনলাইন

বিশেষ সংবাদদাতা
(১ মাস আগে) ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১, মঙ্গলবার, ৯:০৯ অপরাহ্ন

প্রখ্যাত কলামিস্ট, গবেষক, সাংবাদিক, কবি সৈয়দ আবুল মকসুদ না ফেরার দেশে চলে গেছেন। তার নাম শুনলেই চোখে ভাসে সাদা কাপড় পরিহিত এক ব্যক্তির ছবি। অনেকের মনেই তাই স্বভাবতই এই প্রশ্ন জাগে কেন তিনি নিয়মিত এই পোশাক পরতেন। কথাসাহিত্যিক আনিসুল হক ২০১৬ সালের ০৮ জানুয়ারি একটি জাতীয় দৈনিকের এক লেখায় জানিয়েছিলেন সেই কারণঃ

ইরাকে মার্কিন হামলার প্রতিবাদে বাংলাদেশের অগ্রগণ্য সাংবাদিক ও লেখক সৈয়দ আবুল মকসুদ সেলাই করা কাপড় বর্জন করেন। এটা এই অঞ্চলের মানুষের ঐতিহ্য—বিদেশিরা এই অঞ্চলে আসার আগে আমরা সেলাইবিহীন কাপড় পরতাম। ধুতি আর শাড়ি। ব্লাউজ ছিল না। লুঙ্গিতেও সেলাই ছিল না।
ঠাকুরবাড়ি শাড়ির সঙ্গে পরার জন্য ব্লাউজ, পেটিকোট ইত্যাদির প্রচলন করে। ইরাকে গণবিধ্বংসী অস্ত্র আছে এই মিথ্যা অজুহাতে মার্কিনরা হামলা চালায় এবং পুরো পৃথিবীটাকে অশান্ত করে তোলে, সৃষ্টি করে লাখ লাখ মানুষের মৃত্যু ও কোটি মানুষের বেদনার কারণ। তারই প্রতিবাদে সৈয়দ আবুল মকসুদ দুই খণ্ড সেলাই-ছাড়া সাদা চাদর পরা শুরু করেন। তিনি এখনো সেই ব্রত পালন করে চলেছেন।

আবুল মকসুদের সাথে গল্পের স্মৃতিচারণ করে আনিসুল হক লেখেনঃ কিছুদিন আগে সৈয়দ আবুল মকসুদ ভাই আমাদের সঙ্গে গল্প করছিলেন। বললেন, সেদিন রিকশায় যাচ্ছি। দুই লোক ঝগড়া করছে। একজনের পরনে লুঙ্গি। দ্বিতীয় লোক তার লুঙ্গি ধরে টানাটানি করছে। ভাবছিলাম, রিকশা থামিয়ে তাদের ঝগড়া মিটিয়ে দেব। কিন্তু লুঙ্গি ধরে টানাটানি শুরু করার পর ওখানে যাওয়াটা আর বুদ্ধিমানের কাজ বলে মনে হলো না।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Md.Shamsul Alam
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, বুধবার, ১২:১২

বিজয়ী মীরজাফরের চেয়ে পরাজিত সিরাজদ্দৌলার ইতিহাস অনেক বেশী মর্যাদার ও গৌরবের।

shiblik
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, বুধবার, ১১:২২

We have lost perhaps the most important writer of our times. His work on Maulana Bhashani alone makes him the topmost writer of Bangladesh.

অন্যান্য খবর