× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৬ এপ্রিল ২০২১, শুক্রবার

খুলনায় বিএনপি’র মহাসমাবেশ ঘিরে ধরপাকড়

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা থেকে
২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, শুক্রবার

আগামী ২৭শে ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য খুলনার মহাসমাবেশ ব্যর্থ করতে নানা ষড়যন্ত্র চলছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। সরকারের দমননীতির অংশ হিসেবে গত বুধবার দুপুর থেকে এ পর্যন্ত মহানগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে অন্তত ২৫ জন নেতাকর্মীকে পরোয়ানা ছাড়াই গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে দলের হাইকমান্ড থেকে সকল নেতাকর্মীদের সতর্ক থেকে যেকোনো মূল্যে মহাসমাবেশ সফলের আহ্বান জানানো হয়েছে। ইতিমধ্যে সমাবেশের ৮০ শতাংশ প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। কিন্তু হঠাৎ করেই পুলিশ বাড়িতে বাড়িতে অভিযান এবং নেতাকর্মীদের আটক করছে। গতকাল দুপুরে নগরীর কেডি ঘোষ রোড এলাকার দলীয় কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে বিএনপি কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগরী সভাপতি সাবেক এমপি নজরুল ইসলাম মঞ্জু এ সব অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, সমাবেশের অনুমতি চেয়ে গত ১৭ ও ২৩শে ফেব্রুয়ারি দুই দফায় আবেদন করা হয়েছে। ৪টি স্থানের মধ্যে রয়েছে শহীদ হাদিস পার্ক, মহারাজ চত্ব্বর, শিববাড়ি মোড় বাবরী চত্ব্বর ও সোনালী ব্যাংকের সামনে।
যেসব স্থানে সমাবেশ আগে হয়েছে সেখানেই অনুমতি চাওয়া হয়েছে। সিটি মেয়র আশ্বস্ত করেছিলেন অনুমতি দেয়া হবে। অথচ এখনো পর্যন্ত অনুমতি দেয়া হয়নি। বিএনপি আশাবাদী অচিরেই অনুমতি দেয়া হবে। শেষ মুহূর্তে সমাবেশের প্রস্তুতি চলছে, সেই সময় হঠাৎ পুলিশ ঝাঁপিয়ে পড়ার কারণ কি এটি আমাদের বোধগম্য নয়। বুধবার দুপুর থেকে এ পর্যন্ত খুলনা মহানগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে সাবেক কাউন্সিলর জাহিদুল ইসলামসহ অন্তত ২৫ নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ছাড়াই আটক করা হয়েছে। ১ জন অসুস্থ থাকায় তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। বাকিদের একটি থানার গারদে পুরে রাখা হয়েছে। এখন হয়তো কোনো গায়েবি মামলা দেয়া হবে। আমি অনুরোধ করে এসেছি তাদের ছেড়ে দেয়ার জন্য। পুলিশের এই আচরণ প্রত্যাহার করতে হবে। তিনি অভিযোগ করে বলেন, পরিবহন শ্রমিকদের সঙ্গে বৈঠক করে সমাবেশের আগে খুলনা বিভাগে পরিবহন চলাচলে নিষেধ করা হচ্ছে। এই নীতি পরিহার করে নেতাকর্মীদের নির্বিঘ্নে সমাবেশে আসতে দেয়ার আহ্বান জানান তিনি। একইসঙ্গে আটক নেতাকর্মীদের মুক্তি, পুলিশের আচরণ পরিহারের দাবি জানান তিনি। প্রেস ব্রিফিং শেষে দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে সমাবেশের প্রচারপত্র বিলি করা হয়।
প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন খুলনা জেলা বিএনপি’র সভাপতি এডভোকেট এসএম শফিকুল আলম মনা, মহানগর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনি, বিএনপি নেতা জাফরউল্লাহ খান সাচ্চু, মীর কায়সেদ আলী, স ম আব্দুর রহমান, মনিরুজ্জামান মন্টু, শেখ আব্দুর রশিদ, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, মোল্লা খায়রুল ইসলাম, শেখ আবু হোসেন বাবু, সিরাজুল হক নান্নু, আসাদুজ্জামান মুরাদ ও শেখ সাদী প্রমুখ। আগামী ২৭শে ফেব্রুয়ারি সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের দাবিতে, শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম খেতাম বাতিলের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে ও বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে দেশের ৬ সিটিতে মেয়র প্রার্থীদের নেতৃত্বে খুলনাতে মহাসমাবেশের পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি রয়েছে। এ মহাসমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করবেন বিএনপি’র ভাইস-চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর বীর উত্তম। বিশেষ অতিথি থাকবেন বিএনপি’র সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চোধুরী ও যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। এ ছাড়া প্রধান বক্তা ৬ সিটির মেয়র প্রার্থীরা।

 

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর