× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২১ এপ্রিল ২০২১, বুধবার

লকডাউনে ক্লান্ত বৃটিশরা ছুটছেন সৈকতে

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২১, শনিবার, ১০:৪৯ পূর্বাহ্ন

লকডাউনে ক্লান্ত বৃটিশরা। অধৈর্য্য হয়ে পড়েছেন তারা। তাই কঠোর আইন উপেক্ষা করে ছুটছেন সমুদ্রসৈকতে। সেখানে ৫৫ ডিগ্রি ফারেনহাইটে রোদ্রস্নান করছেন। তাদেরকে সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে পুলিশ। ছেলেবুড়ো সবাই এখন সমুদ্রমুখী। শীতের সময়টাতে খুব একটা তারা এমনটা করেন না। তখন বাইরের পরিবেশের কারণে মানুষ খুব একটা বের হন না।
তার ওপর এবার করোনা মহামারির লকডাউনে মানুষের জীবন ছিল চার দেয়ালে বন্দি। তাই বসন্তের প্রথম সপ্তাহের ছুটিতে তারা বাধা উপেক্ষা করে ছুটে গেছেন সৈকতে। সেখানে খোলা হাওয়ায় সূর্য্যস্নান করেছেন দলবেঁধে। বৃটেনে বর্তমানে ‘আর রেট’ সবচেয়ে কম। আর রেট বলতে বোঝায় প্রতি একজন মানুষ অন্য একজনকে সংক্রমিত করার হার। এই হার এখন সবচেয়ে নিচে। তা ছাড়া টিকা দেয়ার হার বৃদ্ধি পেয়েছে। মৃত্যুর সংখ্যা এবং নতুন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা অব্যাহতভাবে কমে আসছে।

বৃটেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের রেকর্ড অনুযায়ী সেখানে সর্বশেষ সপ্তাহে নতুন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮৫২৩ জন। মারা গেছেন ৩৪৫ জন। সাপ্তাহিক হিসাবে এই দুটি সংখ্যাই আগের সপ্তাহের তুলনায় কম। এরই মধ্যে প্রায় এক কোটি ৯২ লাখ বৃটিশকে টিকা দেয়া হয়েছে। এর ফলে মানুষের মধ্যে স্বস্তি ফিরেছে। সব সূচকই উন্নতির দিকে। ফলে মানুষ এখন বাধভাঙা জোয়ারের মতো ঘর থেকে বের হওয়ার চেষ্টা করছেন। এসব খবর দিয়েছে অনলাইন ডেইলি মেইল। তবে সরকারকে সতর্ক করেছেন বিজ্ঞানীরা। তারা বলছেন, মানুষ লকডাউন মেনেছে। কিন্তু সতর্কতা হলো এটা যে, জনগণের মনে রাখা উচিত আগামী কয়েকটি মাস কেন আইন মেনে চলা উচিত।




অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর