× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১১ এপ্রিল ২০২১, রবিবার

মুশতাকের মৃত্যু মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন: মানবাধিকার কমিশন

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার
(১ মাস আগে) ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২১, শনিবার, ৬:৪৬ অপরাহ্ন

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় কারাবন্দী অবস্থায় লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুতে তীব্র নিন্দা ও উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। তারা এ মৃত্যুর ঘটনাকে ‘মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন’ বলে উল্লেখ করেছেন। শনিবার গণমাধ্যমে কমিশনের পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে মানবাধিকার কমিশন এ কথা বলেন।

ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত বছরের মে মাসে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার করে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক কথাবার্তা ও গুজব ছড়ানোর অভিযোগে লেখক মুশতাকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করে র‌্যাব। কমিশন মনে করে, অনাকাঙ্ক্ষিত যেকোনো মৃত্যু সংবিধান ও মানবাধিকারের পরিপন্থী। কারাবন্দী অবস্থায় মৃত্যুর দায় রাষ্ট্র বা তার অধীনস্থ কোনো সংস্থা কোনোভাবেই এড়াতে পারে না। এটি মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর সঠিক কারণ উদঘাটন করে কমিশনকে জানানোর জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের কাছে চিঠি পাঠানো হচ্ছে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে হওয়া মামলায় লেখক মুশতাক আহমেদ গ্রেপ্তারের পর ১০ মাস ধরে কাশিমপুর কারাগারে ছিলেন।।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Nurun Nabi
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, রবিবার, ৯:১৩

Digital Bangladesh do not have Digital Human Rights Commission. I do not see any rights for Mustak. He is dead now. What he will do with Digitization ? Many Many Many Musstak's do not need Digitization.

Mahmud
২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, শনিবার, ৮:১৮

আমাদের দেশে একটি মানবাধিকার কমিশন আছে যেটি সব সময়ই ঘুমিয়ে থাকে । মাঝে মধ্যে ঘুম থেকে উঠে হাঁক ডাঁক দিয়ে আবার ঘুমিয়ে পরে। তবে হ্যাঁ , মাসে মাসে বেতন কিন্তু তারা সময় মতো নেন, তা না'হলে সেটা হবে মানবাধিকার লংঘন।

ওমর ফারুক
২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, শনিবার, ৬:১৩

মানবাধিকার লঙ্ঘিত হওয়ার পর মানবাধিকার কমিসনের টনক নড়ে। এর পূর্বে অভিযোগ পাওয়ার পর ও মানবাধিকার কমিসন কোন প্রকৃত সাড়া বা ব্যবস্থা নেয়না। নিজেই ভুক্তভোগি। জাতীয় মানবাধিকার কমিসনে অভিযোগ করার পর ও কোনরুপ প্রতিকারের ব্যবস্থা না করে অভিযোগ নথিজাত করে নিলেন। অভিযোগকারিকে জানানোর প্রয়োজন ও বোধ করলেন না।

Raju
২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, শনিবার, ৬:৫৫

এরকম বিবৃতি দিলেই এসব বন্দ্ব হবেনা,শুধু একজন 'মুশতাক" নয় এরকম হাজারো "মুশতাক" এর উপর চলছে জুলুম নির্যাতন।নিয়ন্ত্রিত গণতন্ত্র,বিচার হীনতার সংস্কৃতি স্বাধীনতার সমস্ত অর্জন আজ বিলীন।

অন্যান্য খবর