× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৩ এপ্রিল ২০২১, মঙ্গলবার

হাতে ফুল, চোখে জল নিয়ে জীবন উৎসর্গকারী পুলিশ সদস্যদের স্মরণ

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার
২ মার্চ ২০২১, মঙ্গলবার

হাতে ফুল আর চোখে জল নিয়ে দায়িত্বপালনরত অবস্থায় জীবন উৎসর্গকারী পুলিশ সদস্যদের স্মরণ করা হয়েছে। দেশের প্রতিটি পুলিশ ইউনিটে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে গতকাল ‘পুলিশ মেমোরিয়াল ডে ২০২১’ পালন করা হয়। কেন্দ্রীয়ভাবে রাজধানী ঢাকায় দিবসটি উদ্যাপন করা হয়েছে। এ ছাড়া, সকল রেঞ্জ ও জেলা পর্যায়েও দিবসটি পালিত হয়। দিবসের বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে ছিল পুলিশ স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ, আলোচনা সভা, কর্তব্যরত অবস্থায় জীবন উৎসর্গকারী পুলিশ সদস্যদের পরিবারবর্গকে স্বীকৃতি স্মারক প্রদান ইত্যাদি। দিনভর জীবন উৎসর্গকারী এসব পুলিশ সদস্যদের প্রতি শোক, শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা ছিল।
গতকাল সকাল সাড়ে দশটায় রাজধানীর মিরপুরে পুলিশ স্টাফ কলেজ ক্যাম্পাসে নির্মিত অস্থায়ী পুলিশ স্মৃতিস্তম্ভে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এমপি, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন, ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ (আইজিপি), বাংলাদেশ ড. বেনজীর আহমেদ এবং জীবন উৎসর্গকারী পুলিশ সদস্যদের পরিবারবর্গ পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। একটি চৌকস পুলিশ দল গার্ড অব অনার প্রদান করে।
এ সময় বিউগলে করুণ সুর বেজে উঠে। পরে আইজিপি’র সভাপতিত্বে পিএসসি কনভেনশন হলে জীবন উৎসর্গকারী পুলিশ সদস্যদের পরিবারবর্গকে স্বীকৃতি স্মারক প্রদান করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও  সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন,  জনগণের জানমালের নিরাপত্তা রক্ষার্থে নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে প্রতিবছরই উল্লেখযোগ্য সংখ্যক পুলিশ সদস্য নিহত হন। তারা দেশের জন্য  জীবন উৎসর্গ করেছেন, তারা যেন আমাদের কাছে অনুকরণীয় হয়ে থাকেন। শুধু দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় নয়, করোনাকালেও পুলিশ মানবিক দায়িত্ব পালন করেছে। সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন বলেন, ২০১৯ সালে দায়িত্ব পালনকালে ১৭৯ জন পুলিশ সদস্য জীবন উৎসর্গ করেছেন, ২০২০ সালে এ সংখ্যা দাঁড়ায় ২০৮। আমরা এ ধরনের অকাল মৃত্যু, অস্বাভাবিকভাবে মৃত্যুর হার কমিয়ে আনার চেষ্টা করবো। আমরা চাইবো কারো  যেন অকাল মৃত্যু না হয়, অস্বাভাবিক মৃত্যু না হয়। আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ বলেন, দায়িত্বরত অবস্থায় প্রতি বছর আমরা আমাদের অনেক সহকর্মীকে হারাই। আমরা আমাদের কোনো সহকর্মীকে হারাতে চাই না। কিন্তু দেশ ও দেশের মানুষের প্রতি অকৃত্রিম ভালোবাসা ও পেশাগত তাগিদে পুলিশ সদস্যদের সর্বোচ্চ আত্মত্যাগ করতে হয়। এ আত্মত্যাগ অত্যন্ত দুঃসহ। করোনাকালেও আমরা আমাদের বিভিন্ন পদমর্যাদার ৮৬ জন সদস্যকে হারিয়েছি। তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বাংলাদেশ পুলিশ, জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত নিরাপদ বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। জীবন উৎসর্গকারী পুলিশ সদস্যদের আত্মত্যাগের স্বীকৃতি হিসেবে তাদের নামে পুলিশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও স্থাপনার নামকরণ করা হবে।  

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর