× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৩ এপ্রিল ২০২১, মঙ্গলবার
সমাবেশের অনুমতি পেল বিএনপি

রাজশাহীতে দ্বিতীয় দিনেও বাস বন্ধ, দুর্ভোগ

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী থেকে
(১ মাস আগে) মার্চ ২, ২০২১, মঙ্গলবার, ১২:১১ অপরাহ্ন

শেষ মুহূর্তে রাজশাহীতে একটি কমিউনিটি সেন্টারে বিএনপিকে স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তীর বিভাগীয় সমাবেশের অনুমতি দিয়েছে পুলিশ। গত সোমবার রাতে নগরীর পাঠানপাড়ায় নাইস কনভেনশন সেন্টারে সমাবেশ করার অনুমতি দেয়া হয়।
এরআগে সোমবার সকাল থেকে বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ ঘিরে রাজশাহী থেকে সব রুটের বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছিলো। দ্বিতীয় দিনেও জেলা ও আন্তঃজেলাসহ দূর পাল্লার সব বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। মঙ্গলবারে সকাল থেকে কোন বাস ছেড়ে যায়নি বা রাজশাহীতে কোনো বাস আসেনি। ফলে যাত্রীরা ব্যাপক ভোগান্তিতে পড়েছেন। বাস না পেয়ে পাশের জেলা ও আশেপাশের জেলার যাত্রীদের অতিরিক্ত ভাড়া গুনে অটোরিকশা ও থ্রি হুইলারে যেতে হচ্ছে। পথে পথে পুলিশের চেক পোস্ট বসানো হয়েছে।
এছাড়া শিরোইল বাসটার্মিনাল এলাকায় মহানগর যুবলীগের নেতাকর্মীদের মোটরসাইকেল নিয়ে অবস্থান নিতে দেখা গেছে। মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক রাসিক মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল বলেন, বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশের অনুমতি দেয়া হয়েছে কমিউনিটি সেন্টারে। তারা সাহেববাজার জিরোপয়েন্ট, গণকপাড়া মোড় ও সোনাদিঘী মোড়ে সমাবেশের অনুমতি চেয়েছিলেন। কিন্তু সোমবার রাতে কমিউন্টি সেন্টারে সমাবেশ করার অনুমতি দেয় পুলিশ। রাতে সেখানে মঞ্চ তৈরির কাজ করা হয়।
তিনি বলেন, সমাবেশ বানচাল করতে সরকার কৌশলে মালিক ও শ্রমিকদের দিয়ে সোমবার সকাল থেকে রাজশাহীর সকল রুটে বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। সমাবেশের আগে এর আগেও এ রকম করা হয়েছে। এর কারণ বিভাগীয় সমাবেশে যেন মানুষ না আসতে পারে। এটি বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ নস্যাৎ করার অপচেষ্টা বলেও দাবি করেন সাবেক মেয়র।
মহানগর পুলিশের মুখপাত্র ও অতিরিক্ত উপ-কমিশনার রুহুল কুদ্দুস বলেন, ব্যস্ততম এলাকাগুলোতে সমাবেশের অনুমতি চেয়েছিলো বিএনপি। কিন্ত সংঘাত এড়াতে ও জানমালের নিরাপত্তা দিতে কমিউনিটি সেন্টারে অনুমতি দেয়া হয়েছে। কমিউনিটি সেন্টারের ভিতরে লোক না ধরলে পাশে জায়গা আছে। সেখান থেকে তারা অবস্থান করে নেতাদের বক্তব্য শুনতে পারবেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Sarwar
২ মার্চ ২০২১, মঙ্গলবার, ৪:৩৯

হায়রে গনতন্ত্র, হায়রে স্বাধীনতা! আমার প্রানপ্রিয় রাস্ট্র এত নীচ?

জাকিরুল মোমিন
২ মার্চ ২০২১, মঙ্গলবার, ১:২৭

একটা জনসভায় আর কি হবে? তারপরও বাসবন্দ করে দিলো? এতঁ উন্নয়ন তারপরও এত ভয় কেনো?

Md. Harun al-Rashid
২ মার্চ ২০২১, মঙ্গলবার, ২:০৭

বিকল্প উপায় হলো সমাবেশকে হরতল বলে অনুমতি নিন, দেখবেন খানা খন্দকে জাগ দেয়া বাসগুলিও সদর্পে চলছে!

Imon
২ মার্চ ২০২১, মঙ্গলবার, ১:০৬

সমাবেশের অনুমতি দিবে এজন্যই বাস বন্ধ করে রেখেছে।

অন্যান্য খবর