× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৩ এপ্রিল ২০২১, মঙ্গলবার

কমলগঞ্জে ছুরিকাঘাতে সিএনজি চালক নিহত, সড়ক অবরোধ

বাংলারজমিন

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি
৬ মার্চ ২০২১, শনিবার

কমলগঞ্জের শমসেরনগরে ছুরিকাঘাতে জলিল আহমেদ (২৩) নামে এক সিএনজি অটোরিকশা চালক নিহত হয়েছেন। গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার শমসেরনগরের বড়চেক সিএনজি গ্যাস পাম্পে এ ঘটনা ঘটে। নিহত সিএনজি চালক জলিল আহমেদ কমলগঞ্জের আলীনগর বস্তির লাল মিয়া ছেলে। সংসারে রিয়াদ নামে তার ২ বছরের এক শিশুসন্তান রয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টায় বড়চেক সিএনজি পাম্পে গ্যাস নিতে যান কমলগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া শফি। তার প্রাইভেটকারে গ্যাস নেয়া নিয়ে তর্কে জড়িয়ে পড়েন সিএনজি চালক জলিল। এ সময় হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে। খবর পেয়ে সিএনজি চালক ও শফির স্বজনরা ঘটনাস্থলে পৌঁছালে উভয়ের মধ্যে মারধরের ঘটনা ঘটে।
এ সময় অন্ধকারে মধ্যে কে বা কারা সিএনজি চালক জলিলের বুকে ছুরিকাঘাত করলে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথম কমলগঞ্জ হাসপাতালে ও পরে মৌলভীবাজারে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে রাতেই তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। ঘটনার প্রতিবাদে গতকাল সকাল ১০টায় কমলগঞ্জ-শমসেরনগর সড়কের হালিমাবাজার এলাকায় নিহত জলিলের স্বজনরা সড়ক অবরোধ করেন। তাদের সঙ্গে যোগ দেন অন্যান্য চালক ও স্থানীয়রা। এ সময় সড়কের উভয়পাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে কমলগঞ্জ থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান ও ওসি (তদন্ত) সোহেল রানার নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে অবরোধকারীদের সঙ্গে কথা বলে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ঘাতকদের আটকের প্রতিশ্রুতি দিয়ে অবরোধ তুলে দেন। নিহত জলিলের স্ত্রী জরিনা বেগম বলেন, যারা আমার স্বামীকে মেরেছে এবং আমার বুকের ধনকে পিতাহারা করেছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি। কমলগঞ্জ থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান বলেন, ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারে রাতেই বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো হয়েছে। অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

 

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর