× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৭ এপ্রিল ২০২১, শনিবার

স্পিন বিষে নীল ইংল্যান্ড, ফাইনালে ভারত

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
৬ মার্চ ২০২১, শনিবার

তৃতীয় টেস্টে দুই দিনেরও কম সময়ে ইংল্যান্ডকে হারিয়েছিল ভারত। এবার সময়টা একদিন বেড়েছে। তিন দিনে সিরিজের চতুর্থ ও শেষ টেস্ট জিতে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ভারত। টেস্ট শ্রেষ্ঠত্বের মঞ্চে আগামী ১৮ই জুন লর্ডসে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হবে বিরাট কোহলিরা।

আবারো স্পিনারদের কাছেই আত্মসমর্পণ ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের। প্রথম ইনিংসে ভারতীয় স্পিনারদের শিকার ছিল ৮ উইকেট। দ্বিতীয় ইনিংসে দশ সফরকারী ব্যাটসম্যানই ফিরেছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও অক্ষর প্যাটেলের স্পিন ঘুর্ণিতে। ইংল্যান্ডকে ইনিংস ও ২৫ রানে হারিয়ে ৩-১ ব্যবধানে সিরিজ নিজেদের করে নিলো ভারত। প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ডের করা ২০৫ রানের জবাবে ৩৬৫ রান করে স্বাগতিকরা।
১৬০ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করা ইংল্যান্ড থামে ১৩৫ রানে। ভারত সফরে আরো ৫ টি-টোয়েন্টি ও ৩ ওয়ানডে খেলবে ইংল্যান্ড।

শনিবার আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে আগের দিনের ৭ উইকেটে ২৯৪ রানে দিন শুরু করে ভারত। ওয়াশিংটন সুন্দরকে দারুণ সঙ্গ দিচ্ছিলেন অক্ষর প্যাটেল। ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরির পথেই ছিলেন ওয়াশিংটন। ওয়াশিংটনের সঙ্গে অক্ষরের অষ্টম উইকেট জুটিও পেরিয়ে যায় তিন অঙ্ক (১০৬ রান)। দলীয় ৩৬৫ রানের মাথায় রান আউট হন অক্ষর (৪৩ রান)। শেষ দুই ব্যাটসম্যান ইশান্ত শর্মা ও মোহাম্মদ সিরাজকে বেন স্টোকস এক ওভারের মধ্যে ফেরালে ৪ রানের জন্য সেঞ্চুরির আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় ওয়াশিংটনকে (৯৬*)। বেন স্টোকস ৪টি ও জেমস অ্যান্ডারসনের শিকার ৩ উইকেট।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে প্রথম তিন ইংলিশ ব্যাটসম্যান ছুঁতে পারেননি দুই অঙ্ক। দুই ওপেনার জ্যাক ক্রাউলি (৫ রান) ও ডম সিবলি (৩ রান) রানের খাতা খুললেও ‘গোল্ডেন ডাক’ মেরেছেন জনি বেয়ারস্টো। দ্রুতই বেন স্টোকস (২ রান) ফিরলে ৩০ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে শুরুতেই চাপে পড়ে ইংল্যান্ড। বিপর্যস্ত দলকে বাঁচাতে পারেননি অধিনায়ক জো রুটও (৩০ রান)। ড্যানিয়েল লরেন্স ৫০ রান না করলে একশ’র নীচে অলআউট হওয়ার লজ্জাতেও পড়তে পারতো ইংল্যান্ড। অশ্বিন-অক্ষরের বোলিং তোপে দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি সাত ইংলিশ ব্যাটসম্যান। ৫টি করে উইকেট নেন অশ্বিন ও অক্ষর প্যাটেল। দুই ভারতীয় স্পিনারই ছুঁয়েছেন মাইলফলক। অভিষেক টেস্ট সিরিজে (তিন বা তার বেশি ম্যাচের) সবচেয়ে বেশি ২৭ উইকেট অক্ষরের। টেস্ট ক্যারিয়ারে ৩০তমবারের মতো ইনিংসে পাঁচ উইকেট নেয়ার কৃতিত্ব দেখিয়েছেন অশ্বিন। টেস্ট ইতিহাসে যা ষষ্ঠ সর্বোচ্চ। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে ৩২ উইকেট ও এক সেঞ্চুরিতে ১৮৯ রান করে সিরিজসেরা অশ্বিন। ১০১ রান করে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেয়া ঋষভ পন্ত হয়েছেন ম্যাচসেরা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর