× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৯ এপ্রিল ২০২১, সোমবার

শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার ডাম্পিং স্টেশন না থাকায় পরিবেশ দূষিত হচ্ছে

বাংলারজমিন

শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি
৮ মার্চ ২০২১, সোমবার

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে পৌরসভার দূষিত বর্জ্য যত্রতত্র ফেলা হচ্ছে। এতে নষ্ট হচ্ছে পরিবেশ। ১৯৯৮ সালে শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভা প্রতিষ্ঠা করা হলেও দীর্ঘ দুই দশকেও ডাম্পিং স্টেশন পায়নি পৌরবাসী।
সরজমিন দেখা যায়, পৌরসভার শায়েস্তাগঞ্জ-হবিগঞ্জ সড়ক, খোয়াই নদীর বেড়িবাঁধ ও মহাসড়কের পাশে খোলা পরিবেশে ফেলা হচ্ছে পৌরসভার বর্জ্য। এতে একদিকে যেমন পরিবেশ দূষিত হচ্ছে তেমনি দুর্গন্ধের কারণে ছড়াচ্ছে নানা রোগবালাই। দূষিত বর্জ্যরে কারণে মহাসড়কের গাছগুলো মারা যাচ্ছে। এ সুযোগে রাতের আঁধারে গাছগুলো কেটে নেয়ার অভিযোগও পাওয়া গেছে।
এ ব্যাপারে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) হবিগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল সোহেল বলেন, স্বাস্থ্যকর ও বাসযোগ্য নগরায়নের জন্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে সুষ্ঠু বর্জ্য ব্যবস্থাপনা। প্রায় দুই দশকের পুরনো শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভা নানা কারণে গুরুত্বপূর্ণ।
এই পৌরসভায় সুষ্ঠু বর্জ্য ব্যবস্থাপনা না থাকায় গৃহস্থালিসহ নানা ধরনের বর্জ্য পুকুর, ডুবাসহ যত্রতত্র ফেলা হচ্ছে। এতে মানবদেহে বিভিন্ন রোগবালাই বাসা বাঁধছে।
এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সজীব আহমেদ জানান, সড়ক বিভাগের জায়গাতে পৌরসভার বর্জ্য ফেলার কোনো সুযোগ নেই, আমরা এ বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করবো।
শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার মেয়র ফরিদ আহমেদ অলি বলেন, আগামী কয়েক মাসের ভিতরেই শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার ডাম্পিং স্টেশন নির্মাণের কাজ শুরু করা হবে। আশা করছি, খুব শিগগিরই এই সমস্যার সমাধান হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর