× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৯ এপ্রিল ২০২১, সোমবার

বিজ্ঞাপনে আক্রমণাত্মক শব্দ নয়: বাংলাদেশ ব্যাংক

অনলাইন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার
(১ মাস আগে) মার্চ ৮, ২০২১, সোমবার, ৯:২৬ পূর্বাহ্ন

মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস এবং পেমেন্ট সার্ভিস প্রতিষ্ঠানগুলোকে একে অন্যের বিরুদ্ধে সামাজিক এবং গণমাধ্যমে আক্রমণাত্মক ভাষা ব্যবহারে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

পাশাপাশি জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা অনুযায়ী পরিচালনা করার নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে।

রোববার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পেমেন্ট সিস্টেম বিভাগ থেকে এ-সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করে দেশের সব তফসিলি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বা প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, মোবাইল সেবাদানকারী ব্যাংক এবং সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠান, পেমেন্ট সার্ভিসেস প্রোভাইডার (পিএসপি) ও পেমেন্ট সিস্টেম অপারেটর (পিএসও) প্রতিষ্ঠানগুলোতে পাঠিয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ‘সম্প্রতি দেখা গেছে, বিভিন্ন ই-ওয়ালেট, ই-মানি প্রোভাইডারগুলো প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারিত বাণিজ্যিক প্রচারণা এবং জনসংযোগমূলক বিজ্ঞাপনগুলোতে (সংবাদপত্র, বিভিন্ন ওয়েবসাইট, ইউটিউব, ফোনে পাঠানো এসএমএস, ফেসবুক, লিংকডইন, টুইটার ইত্যাদি) বা প্রচারণামূলক অন্যান্য কার্যক্রমে এক প্রোভাইডার অন্য প্রোভাইডারকে হেয়প্রতিপন্ন করছে। একে অপরের সেবা সম্পর্কে বিদ্রুপপূর্ণ ও আক্রমণাত্মক শব্দ ব্যবহার করছে। এটা অনভিপ্রেত ও অনাকাঙ্ক্ষিত’।

এ জন্য বিজ্ঞাপন প্রচারে বিদ্রুপপূর্ণ ও আক্রমণাত্মক শব্দের ব্যবহার পরিহার তথা নেতিবাচক প্রচারণা থেকে বিরত থাকার পাশাপাশি জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা অনুযায়ী পরিচালনা করার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Titi Meer
৭ মার্চ ২০২১, রবিবার, ৮:৪৩

এ ব্যাপারে নতুন একটা অপারেটর অগ্রগামী ৷

আনাম
৮ মার্চ ২০২১, সোমবার, ৯:৩৯

তা বাংলাদেশ ব্যাংকের পানি ভরা ট্যাংকের টনক এতদিনে নড়লো? বোঝাই যায় ক্ষতিগ্রস্ত পক্ষের থেকে ঝাঁকাঝাকি করে নাড়ানো হয়েছে। আর নইলে হুঁশই হতো না। ওদিকে যে মোবাইল অর্থ সেবা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে ওই আক্রমণাত্মক বিজ্ঞাপনের অপকর্ম করা হয়েছে তার ৫১ শতাংশের মালিক তো সরকার। বেশির ভাগ দায় তাহলে কার ওপরে বর্তায়?

অন্যান্য খবর