× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২৩ এপ্রিল ২০২১, শুক্রবার, ১০ রমজান ১৪৪২ হিঃ

খুলনায় সওজ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা থেকে
৯ মার্চ ২০২১, মঙ্গলবার

খুলনা মহানগরীর পাওয়ার হাউজ মোড়-ময়লাপোতা সড়কে নিম্নমানের নির্মাণকাজে স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। প্রায় সাড়ে ৬ কোটি টাকা ব্যয়ে মাত্র ৭০০ মিটার সড়কটি আরসিসি ঢালাই দিয়ে তৈরি হয়। যা’ ৫০ বছরের বেশি টেকসই হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু নির্মাণ কাজের দুই সপ্তাহের মধ্যে সড়কে ঢালাইয়ের ওপরের অংশ নষ্ট হয়ে গেছে। বিষয়টি জানাজানি হলে উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত টিম গঠন করা হয়।
জানা যায়, নিম্নমানের কাজ ধামাচাপা দিকে গত ২৬শে ফেব্রুয়ারি রাতের আঁধারে সড়কটিতে বিটুমিন দিয়ে নতুনভাবে ঢালাই দেয়া হয়েছে। এ নিয়ে ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। এদিকে, সড়কে নিম্নমানের কাজের সঙ্গে জড়িত থাকায় খুলনায় সড়ক ও জনপথ বিভাগে তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী তাপসী দাসের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।
গত রোববার খুলনা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে স্থানীয় বাসিন্দা এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগের ঠিকাদারদের পক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এসএম শহিদুল ইসলাম বাবু জানান, এর আগে ২০১২ সালে বটিয়াঘাটার শোলমারী ব্রিজ নির্মাণে গার্ডার ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে স্লাব বসে গেলে তাপসী দাসকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। কিন্তু ২০১৮ সালে তাকে পদায়ন করে নির্বাহী প্রকৌশলী করা হয়।
এর মধ্যে তার বিরুদ্ধে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি অর্জনের অভিযোগ মামলায় তদন্ত শুরু করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদক খুলনার বিভাগীয় পরিচালক মঞ্জুর মোর্শেদ জানান, সওজ কর্মকর্তা তাপসী দাসের বিরুদ্ধে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের মামলার তদন্ত প্রতিবেদন ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।
 

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর