× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৮ এপ্রিল ২০২১, রবিবার
ঝুঁকিতে ঢাকা-সিলেট রেললাইন

ফিসপ্লেট ও নাট খুলে নিয়ে যাচ্ছে দুর্বৃত্তরা

বাংলারজমিন

ইয়াছিন তন্ময়, মাধবপুর (হবিগঞ্জ) থেকে
৯ মার্চ ২০২১, মঙ্গলবার

ঢাকা-সিলেট রেললাইনের ফিসপ্লেট ও নাট-বল্টু খুলে নিয়ে যাচ্ছে  দুর্বৃত্তরা। রেললাইন সংস্কার, মেরামত ও পরিদর্শনে এক রকম নির্বিকার দায়িত্বপ্রাপ্তরা। রেলওয়ে বিধান অনুযায়ী মোটর-ট্রলিতে করে লাইন পরীক্ষা করার কথা থাকলেও ঢাকা-সিলেট লাইনের মনতলা থেকে নোয়াপাড়া, শায়েস্তাগঞ্জ হয়ে কুলাউড়া পর্যন্ত এ ধরনের কোনো কার্যক্রম পরিচালনা করা হয় না বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা। ফলে রাতের আঁধারে দুর্বৃত্তরা বিশেষ যন্ত্র ব্যবহার করে রেললাইনের ফিসপ্লেট-নাট খুলে নিয়ে যাচ্ছে। খাঁটি লোহার এসব ধাতব বস্তুর চড়া দাম থাকায় প্রতিনিয়ত তা চুরি হচ্ছে। রেলওয়ের কর্তৃপক্ষের নিয়মিত টহল না থাকায় নিবিঘ্নে তারা এসব চুরি করতে পারে। প্রয়োজনীয় সংখ্যক ফিসপ্লেট ও নাট  না থাকায় ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে ট্রেন। ফলে প্রতিনিয়ত ঢাকা-সিলেট লাইনে ঘটছে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।
লাইনে ভাঙা স্লিপার, ক্লিপ-হুক, ফিসপ্লেট না থাকাও এসব দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ।
সরজমিনে দেখা গেছে, ইটাখোলা রেলস্টেশন সংলগ্ন রেললাইনে মাত্র ৩০০ মিটারের মধ্যে পাতের সঙ্গে  শতকরা ৫০টি ক্লিপ নেই। এ রকম হাজারও ক্লিপ চুরি করে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা।  ফলে ট্রেন চলাচলের সময় যে কোনো মুহূর্তে বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দা হেলাল মিয়ার সাথে কথা হলে তিনি বলেন, দুর্বৃত্তরা রেললাইনের ফিসপ্লেট ও নাট খুলে নিয়ে যাওয়ায় চরম ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে দেশের অন্যতম পুরনো ঢাকা-সিলেট রেলপথ। দ্রুত তা মেরামত না হলে ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। এই বিষয়ে কথা হলে রেলের সিলেট বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. সুলতান আলী বলেন, রেলের নাট দুর্বৃত্তরা নিয়ে গেলে আমরা তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করি। এগুলো মেরামত করে ট্রেন চলাচলের উপযোগী করে রাখি। তিনি আরো বলেন, ঢাকা-সিলেট লাইনের স্লিপারগুলি অনেক পুরাতন। যে কারণে ক্লিপ খুলে যায়। আপাতত যে অবস্থায় আছে নিরাপদ আছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর