× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১১ মে ২০২১, মঙ্গলবার, ২৮ রমজান ১৪৪২ হিঃ

মিশন মারফত বৈশ্বিক করোনা পরিস্থিতির রিপোর্ট নিচ্ছে সরকার

দেশ বিদেশ

মিজানুর রহমান
৫ এপ্রিল ২০২১, সোমবার

বৈশ্বিক মহামারি করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আচমকা আছড়ে পড়ার প্রেক্ষিতে বিশ্বের কোন্ দেশের কি অবস্থা, সরকারগুলো কি ব্যবস্থা নিচ্ছে বিশেষত দেশে দেশে প্রবাসী বাংলাদেশিরা কেমন আছেন? মিশন মারফত সেই রিপোর্ট সংগ্রহ করেছে সরকার। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জরুরি বার্তা পেয়ে নিয়মিতভাবে ঢাকায় রিপোর্ট পাঠাচ্ছে মিশনগুলো। গত সপ্তাহে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তরফে এ সংক্রান্ত তাগিদপত্র পাঠানো হয় দুনিয়ার বিভিন্ন প্রান্তে থাকা বাংলাদেশ দূতাবাস, হাইকমিশন, কনস্যুলেট এবং উপ ও সহকারী মিশনগুলোতে। সেগুনবাগিচার করোনা সেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা বলছেন, কোভিড-১৯ এর সংক্রমণ দেখা দেয়ার পর থেকে নিয়মিতভাবে ঢাকায় রিপোর্ট এসেছে। কিন্তু গত ক’মাসে সংক্রমণ খানিকটা নিয়ন্ত্রণে চলে আসায় রিপোর্ট পাঠানোর ক্ষেত্রে সঙ্গত কারণেই শিথিলতা আসে। দ্বিতীয় দফায় বৈশ্বিকভাবে সংক্রমণ বেড়ে যাওয়া এবং দেশে দেশে করোনার নতুন নতুন স্ট্রেইন দেখা দেয়ার প্রেক্ষিতে নিয়মিতভাবে রিপোর্ট পাঠানোর তাগিদ দেয়া হয়। বিশ্ব পরিস্থিতি পর্যালোচনা এবং বাংলাদেশের করোনার নিয়ন্ত্রণে তুলনামূলক কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের ক্ষেত্রে বিদেশস্থ মিশনগুলোর রিপোর্ট সরকারের জন্য সহায়ক হতে পারে বলে মনে করেন নীতি নির্ধারকরা। করোনা সেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত এক কর্মকর্তা গতকাল সন্ধ্যায় মানবজমিনকে বলেন, সপ্তাহখানেক আগে ফ্যাক্স এবং ই-মেইল যোগে মিশনগুলোতে রিপোর্ট চেয়ে বার্তাটি পাঠানো হয়।
এরপর থেকে অন্তত ডজন খানেক রিপোর্ট ঢাকায় এসেছে। প্রায় প্রতিদিনই কোনো না কোনো মিশনের রিপোর্ট আসছে। রিপোর্টগুলো নীতি নির্ধারকদের বিবেচনায় নিয়মিতভাবে উপস্থাপন করা হচ্ছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর