× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১২ এপ্রিল ২০২১, সোমবার

মাওলানা রফিকুল ইসলাম আটক, মুক্তি দাবি হেফাজতের

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার
(৪ দিন আগে) এপ্রিল ৭, ২০২১, বুধবার, ৩:৪৫ অপরাহ্ন

‘শিশুবক্তা’ খ্যাত রফিকুল ইসলাম মাদানীকে আটক করেছে র‌্যাব। নেত্রকোনা থেকে তাকে আটক করা হয়। রাষ্ট্র বিরোধী উস্কানিমূলক, ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগে তাকে আটক করা হয়েছে বলে বুধবার দুপুরে র‌্যাবের গণমাধ্যম শাখা থেকে জানানো হয়েছে।
এর আগে মাওলানা রফিকুল ইসলামকে মঙ্গলবার রাতে নেত্রকোনায় তার নিজ বাড়ি থেকে র‌্যাব পরিচয়ে তুলে নেয়া হয় বলে অভিযোগ করে হেফাজতে ইসলাম। একই সঙ্গে তার মুক্তি দাবি করে সংগঠনটি। হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ দাবি জানানো হয়।
বিবৃতিতে বলা হয়, মাওলানা রফিকুল ইসলাম একজন জনপ্রিয় ওয়ায়েজ। কোরআন-হাদিসের আলোকে সমকালীন প্রেক্ষাপট নিয়ে গঠনমূলক আলোচনা করেন। তার বয়ানে দেশের কল্যাণে মানুষের অন্তরের ঈমানী চেতনা জাগ্রত হয়। দেশের প্রতি ভালোবাসার তাগিদে জনগণকে অন্যায় জুলুম ও অত্যাচারের বিরুদ্ধে জাগ্রত হওয়ার আহ্বান জানান।
এটা তার অপরাধ হলে দেশের প্রচলিত আইনের মাধ্যমে তাকে আইনের আওতায় আনতে পারতেন। কিন্তু কোনো ধরনের পূর্ব মামলা ছাড়া বিনা কারণে তাকে ধরে নিয়ে যাওয়া নাগরিকদের প্রতি রাষ্ট্রের অন্যায় কি পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে এটা তার জলন্ত প্রমাণ।
বিবৃতিতে আরো বলা হয়, অবিলম্বে মাওলানা রফিকুল ইসলামকে মুক্তি দিন। অন্যথায় এদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব, আলেম-ওলামার ইজ্জত রক্ষা এবং মসজিদ মাদ্রাসা হেফাজতে দল-মত নির্বিশেষে লড়াই করতে আপামর জনগণ সর্বদা প্রস্তুত আছে ইনশাআল্লাহ্। কোনো অপশক্তির গুম, খুন, হুমকি-ধমকিকে নায়েবে রাসূল ওলামায়ে ক্বেরাম ও তৌহিদী জনতা পরোয়া করে না।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
মদিনা
৮ এপ্রিল ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১২:৩৭

মাওলানা রফিকুল ইসলাম শিশু বক্তা নন, এটা তার জন্য অপবাদ। আমরা মুসলমান, কিন্তু আমাদের মাঝে ইসলাম পরিপূর্ণ আছে কিনা সন্দেহ। আমি মনে করি ইসলাম নিয়ে ভালোভাবে জ্ঞান চর্চা করা উচিত।

alberta
৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার, ৮:০৮

Is a case of treason against a minor a sign of doomsday?

মোঃ মনিরুজ্জামান
৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার, ৭:৩৩

ইসলাম প্রচার প্রসারে বাধা এ তো জাহেলি জুগের অনুকরন। এদেশে এ আমোলে ইসলাম নিয়ে যে-ই কথা বলছে সে-ই অন্ধকার কারাগারে নিক্ষিপ্ত হয়েছে। এতে ইসলাম বরং প্রসারিত হচ্ছে আর ওরা 'একঘরে' হওয়ার পথ মজবুত করছে। আল্লাহ্ মহান। তিনি মুনাফিকদের সুযোগ দেন।

Abu imran
৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার, ৭:১৫

I am pretty sure Awame law enforcement forces(Policeleage,Rableage,Bgbleage) involved with this incident.

Engr Tariqul Islam
৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার, ৬:০২

কিছু বুকা অবুজ লোকজন প্রাইবলে যে আলেমওলামার কেন রাজনীতী করবে তাহলে কি রাজনীতি শুধুমাত্র অশিক্ষিত লোক নাস্তিক যারা তারা করবে। এখন কারা রাজনীতি করছে তাদের অনেকেরই কোন আদর্শ নাই কোন নিতি নাই। ইসলামে রাজনীতি করার বিধান আছে,,, এখন কি রাজনীতি চলছে দেশে সেটা সবাই জানে,,, আছে কোন গণতন্ত্র,,,

Suresh Saha Roy
৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার, ৫:৫০

I am a member of the minority religious group in Bangladesh. I have listened to a number of his speeches today. He is intelligent and articulate. I didn’t find anything offensive in his speeches. He genuinely tried to say that the visit by the Indian PM was not right as he was linked to religious extremism and Modi’s visit could trigger similar reverse sentiment in Bangladesh. That exactly what happened now and the communal sentiment will now rise because of the government action. We are feeling unsecured.

শিকদার
৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার, ৫:২৭

ছি রফিক চৌধুরী! না জেনে না বুঝে মন্তব্য করলেন।

আহমেদ সেলিম
৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার, ৪:১৮

একটি স্বাধীন দেশে কথা বলার অধিকারটুকু তো থাকা উচিত। কি দোষ করেছেন এই ভদ্রলোক? অন্যায় কিছু তো বলেন নি!

Faruque Ahmed
৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার, ৪:৫৫

He is not a Shishu ......His title is Maolana , so he pass graduation and post graduation. So the people who tell him Shishu . they don't know.

আনিস উল হক
৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার, ৩:৫০

ধর্মকে রাজনীতির সাথে জড়িয়ে ফেলা কখনোই কোনো জাতির জন্য কোন মঙ্গলবার্তা বয়ে আনেনি। আমাদের মনে রাখতে হবে নানা ধর্মবিশ্বাসের মানুষ নিয়েই একটি জাতি গড়ে উঠে এবং কোন জাতির সম্মিলিত ঐকমতের চূড়ান্তরূপ হোল একটি রাষ্ট্র।বাংলাদেশ নামের রাষ্ট্রের ভিত্তিও তাই।কোনরূপ উন্মত্ত উন্মাদনা তৈরী করে আমাদের রাষ্ট্র কাঠামোর যেন কেউ কোন প্রকারে ক্ষতি করতে না পারে সে বিষয়ে আমাদের সবাই কে দায়িত্বশীল আচরণ করতে হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক
৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার, ৩:৩২

এই পর্যন্তই।

Rafiqul Chowdhury
৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার, ৪:২০

মুসলিম স্কলারদের মতে শিশু বক্তার আবির্ভাব কেয়ামতের আলামত । আর এই ছেলেটা বেয়াদব ও ইঁচড়েপাকা । একে দীর্ঘ দিনের জন্যে শিশু শোধনাগারে রাখা হোক ।

অন্যান্য খবর