× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ৯ মে ২০২১, রবিবার, ২৬ রমজান ১৪৪২ হিঃ

যে মাইলফলকে পাকিস্তান প্রথম

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
১১ এপ্রিল ২০২১, রবিবার

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলার রেকর্ড পাকিস্তানের দখলে। একমাত্র দল হিসেবে আগেই দেড়শ ম্যাচ খেলার পরিসংখ্যান ছুঁয়েছে তারা। এবার প্রথম এবং এখন পর্যন্ত একমাত্র দল হিসেবে কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে জয়ের সেঞ্চুরি পূর্ণ করেছে পাকিস্তান।

৩ ম্যাচের ওয়ানডে ও ৪ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে গেছে পাকিস্তান ক্রিকেট দল। সেখানে ওয়ানডে সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতে নিয়েছে সফরকারী। টি-টোয়েন্টি সিরিজও জয়ে শুরু করলো পাকিস্তান। স্বাগতিকদের দেওয়া ১৮৮ রান ১ বল হাতে রেখে ৪ উইকেটে জয় তুলে নেয় তারা। এই জয়ের ফলে একাধিক রেকর্ডের সঙ্গী হয়েছে পাকিস্তান।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে প্রথম দল হিসেবে জয়ের সেঞ্চুরি (সুপার ওভার ছাড়া) পূর্ণ করলো ২০০৯ সালের চ্যাম্পিয়নরা। এই অর্জন ছুঁতে ১৬৪টি ম্যাচ খেলতে হয়েছে পাকিস্তানকে।
এই তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ভারত। তাদের জয় ৮৮টি। এছাড়া সমান ৭১টি করে জয় আছে দক্ষিণ আফ্রিকা ও নিউজিল্যান্ডের। পঞ্চাশটির অধিক জয় আছে শ্রীলঙ্কা (৬০), আফগানিস্তান (৫৮) ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের (৫৬)। এ ফরম্যাটে বাংলাদেশের জয় আছে ৩২টি।

জয়ের সেঞ্চুরি ছোঁয়ার দিনে আরো একটি রেকর্ড গড়েছে পাকিস্তান। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে এই জয় টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের সবচেয়ে বেশি রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড। এর আগে ২০১৮ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে হারারেতে ১৮৩ রান তাড়া করে জিতেছিল পাকিস্তান। দলীয় রেকর্ডের দিনে সেঞ্চুরির স্বাদ পেয়েছেন পাকিস্তানের টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ হাফিজ। তবে ব্যাট হাতে নয়, এদিন পাকিস্তানের জার্সিতে ১০০তম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেন তিনি। বিশ্বের ৬ষ্ঠ এবং ২য় পাকিস্তানি ক্রিকেটার হিসেবে ১০০টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলার গৌরব অর্জন করেন হাফিজ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর