× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৩ মে ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৩০ রমজান ১৪৪২ হিঃ

ফর্মে ফিরতে ছোটবেলার কোচের দ্বারস্থ সৌম্য

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার
১৪ এপ্রিল ২০২১, বুধবার

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের একাডেমির মাঠে নেটে টানা দুই ঘণ্টা ব্যাট করলেন সৌম্য সরকার। তাকে বল করছিলেন পেসার কামরুল ইসলাম রাব্বি। এছাড়াও বেশ কয়েকজন তরুণ বোলারও তার অনুশীলনে সঙ্গী হয়েছেন। গতকাল সকাল সাড়ে ১০ টা থেকে ১২ টা পর্যন্ত ঘাম ঝরালেন সৌম্য। শ্রীলঙ্কায় টেস্ট সিরিজ খেলতে যাওয়া ২১ সদস্যের প্রাথমিক দলেও জায়গা হয়নি তার। দল থেকে বাদ পড়ার কারণ ফর্ম হারানো। ব্যাটিং টেকনিকেও সমস্যা। তাই মুক্তির পথ খুঁজতে তিনি অনুশীলনে পাশে রেখেছেন ছোটবেলার কোচ মিজানুর রহমান বাবুলকে।
দুইদিন ধরেই কাজ করছেন বাবুলের সঙ্গে। এ বিষয়ে দৈনিক মানবজমিনকে বাবুল বলেন, ‘আসলে কালকে (সোমবার) আমি এখান (একাডেমি) থেকে যাচ্ছিলাম। তখন সৌম্যের সঙ্গে দেখা। বললো যে, স্যার আমার সঙ্গে একটু কাজ করেন। সৌম্যদের যে ব্যাচটা অনূর্ধ্ব-১৭ থেকে আমি ওদের কোচ ছিলাম। সে আস্থা থেকে হয়তো বলছে স্যার একটু দেখেন।’ নিউজিল্যান্ডে ওয়ানডে সিরিজে ব্যাট হাতে ব্যর্থ। তবে টি-টোয়েন্টি সিরিজে এক ম্যাচে ফিফটি হাঁকান। দেশের হয়ে ৫৩ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে এটি তার তৃতীয় ফিফটি! ওয়ানডেতে ৩২.১৪ গড়ে করেছেন ১৭৬৮ রান। ২ সেঞ্চুরির সঙ্গে ফিফটি ১১টি। এই পরিসংখ্যান খারাপ না বলা গেলেও ধারাবাহিক যে নয়- তা দিনের আলোর মতো পরিষ্কার। ১৬ টেস্ট ২৭.৭০ গড়ে করেছেন মাত্র ৮৩১ রান। এই ফরম্যাটেও আছে ধারাবাহিকতার অভাব। বিশেষ করে তার এমন খেই হারিয়ে ফেলার কারণ হিসেবে বারবারই সামনে আসছে ভুল ব্যাটিং টেকনিকের কথা। কোচও মনে করেন কারণটা তাই। তিনি বলেন, ‘২০০৭ সাল থেকেই ওদের সঙ্গে কাজ করছি। যাদের গড়ে ওঠার পেছনে আমাদের সামান্যতম অবদানও আছে, এখন জাতীয় দলে খেলে তবুও আমরা তাদের ফলো করি কে কেমন করছে। ভালো খেললে ভালো লাগে, অফ ফর্মে থাকলে কিছুটাতো খারাপ লাগেই। ওই সূত্রেই সৌম্যকে ফলো করি, নিউজিল্যান্ডে খেলা দেখলাম, ভালো খেলেনি। আমার কাছে যেটা মনে হয়েছে অল্প কিছু টেকনিক্যাল সমস্যাতো হয়েছেই। কিন্তু ওরা যদি নিজে থেকে না আসে আমরা কিন্তু যাই না। যেহেতু এখন জাতীয় দলে খেলে ওদের কোচ আছে। নিজে থেকেই বলেছে, আমারও মন চেয়েছে সে সূত্র ধরেই কাজ করলাম। কালকেও এসেছি, আজকেও আসলাম। আমারও ভালো লাগে কাজ করতে যারা এ রকম কিছুটা সমস্যার মধ্যে আছে। আমার অবদান যদি তাকে ভালো জায়গায় নিয়ে যেতে পারে আমারও ভালো লাগবে অনেক বেশি।’ অন্যদিকে সৌম্যের ব্যাটিং টেকনিকের এই সমস্যার জন্য দায়ী করা হচ্ছে জাতীয় দলের কোচদের। অভিযোগের আঙ্গুলটা বারবার এই দেশের ক্রিকেটের দায়িত্ব নেয়া বিদেশি কোচদের দিকেই। তবে মিজানুর রহমান বাবুল বিষয়টি সেভাবে না দেখে বলেন, ‘কি হয়, একেক কোচের একেকরকম থিম থাকে। যারা আসছে কিংবা কাজ করছে তারা হয়তো আরো কীভাবে তার উন্নতি করা যায় সে চিন্তায় ওর (সৌম্য) করেছে। কিন্তু হয়তো ওটাই তার জন্য খারাপ হয়েছে। কোচরা আসলে খারাপ চান না ভালোই চান। কিন্তু ও হয়তো সেটা ভালোভাবে নিতে পারেনি। মানে আমার কাছে মনে হয় সমন্বয় হয়নি। আর বেশি যে টেকনিক্যালি সমস্যা হয়েছে তাও না, অল্প কিছু। ও নিজে নিজেও বুঝতে পারছিল সমস্যাটা কোথায়। আমার মনে হয় আবার ঠিক হয়ে যাবে শিগগিরই।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর