× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৫ মে ২০২১, শনিবার, ২ শওয়াল ১৪৪২ হিঃ

লন্ডনে রমজানে প্রথম দিন জিলাপির দোকানে দীর্ঘ লাইন

অনলাইন

খালেদ মাসুদ রনি, বৃটেনে থেকে
(১ মাস আগে) এপ্রিল ১৪, ২০২১, বুধবার, ৮:৫৫ অপরাহ্ন

ইউরোপ, আরব দেশের মতো মঙ্গলবার বৃটেনেও ছিলো প্রথম রমজান। দেশটিতে এবার মুসলমানরা প্রায় সাড়ে ১৫ ঘণ্টা রোজা রেখেছেন। ভোর ৪.৩৬ থেকে শুরু করে সন্ধ্যা ৭.৫৭ মিনিটে গিয়ে ইফতার করতে হয়েছে। যদিও অন্য বছরের চেয়ে ঘণ্টা অনেকটা কমে এসেছে। এর আগে ১৯ ঘণ্টা পর্যন্ত রোজা রাখতে হয়েছে মুসলমানদের।
রমজান উপলক্ষে বৃটেনের বিভিন্ন শহরে জমে উঠেছে ইফতার সামগ্রী বেচা-কেনা। আর দেশটির রাজধানী লন্ডনে সবকিছু বাংলাদেশের মতো চলছে। এখানে রমজানে ইফতারের সময় জিলাপি থাকবে না বা নতুন জামাইয়ের(মেয়ের স্বামী`র)বাড়িতে ইফতার পাঠানো হবে না তা কি করে হয়! এজন্য লকডাউনের মধ্যে বাঙ্গালী অধ্যুষিত পূর্ব লন্ডনের বিভিন্ন দোকানে প্রথম রমজানের দিন মঙ্গলবার জিলাপি, মিষ্টি, দইয়ের দোকানে দীর্ঘ লাইন লক্ষ করা গেছে।

এসব ইফতার সামগ্রী কিনতে বাঙ্গালীরা, বিশেষ করে সিলেটিরা ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়েছেন। মঙ্গলবার(১৩ এপ্রিল)বিকেলে লন্ডন শহরের হোয়াইচ্যাপল, ক্যানন স্ট্রিটসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে ইফতার সামগ্রীর দোকানে প্রচন্ড ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।
অনেককে দীর্ঘ লাইন দেখে জিলাপি না কিনেই বাসায় ফিরতে হয়েছে।দেশের মতো এখনে ইফতারের আয়োজনে জিলাপি বেশ জনপ্রিয়। বৃটেনে বাঙ্গালী পরিবারগুলোতে ইফতারের আইটেমে মিষ্টির রেওয়াজ থাকায় অন্য সময়ের চেয়ে দোকান গুলোতে বিক্রি বেড়ে যায়। গত সোমবার থেকে ইংল্যান্ডে লকডাউন অনেকটা শিথিল করা হয়। ফলে বেশিরভাগ দোকান খোলার কারণে এমনিতেই মানুষের ভিড় ছিলো বিভিন্ন দোকানে। এর মধ্যে প্রথম রমজান হওয়ায় ইফতার সামগ্রীর দোকানে ভিড় ছিলো চোখে পড়ার মতো।

এদিকে,গত বছর দেশটিতে মসজিদে তারাবির নামাজ না হওয়ায় এবার লকডাউনের মধ্যে মসজিদ গুলোতেও প্রচন্ড ভিড় লক্ষ করা গেছে।যদিও করোনার কারণে এত মানুষের সমাগম ঘটবে আশা করা যায়নি। তবে করোনা মহামারির কারণে এবছর বেশিরভাগ মসজিদে তারাবির নামাজ কমিয়ে ৮ রাকাতে নিয়ে আসা হয়েছে। মসজিদ থেকে বলা হয়েছে, কেউ চাইলে ঘরে গিয়ে বাকি নামাজ আদায় করতে পারবেন। নামাজ শেষে মুসল্লিদের খোশগল্প করতে করতে বাসায় ফিরতে দেখা গেছে। তবে লকডাউনের বিধিনিষেধের কারণে গত বছররের মতো এবারও কোন রেস্টুরেন্টে ইফতার পার্টি হচ্ছে না। অন্যান্য বছর প্রতি রেস্টুরেন্টে ইফতার মাহফিলের বুকিং থাকতো। প্রতি বছররে মতো এবারও রমজান উপলক্ষে দেশটিতে বসবারত মুসলমানদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বৃটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর