× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৫ মে ২০২১, শনিবার, ২ শওয়াল ১৪৪২ হিঃ

সাপের কামড়ে হাসপাতালে চিড়িয়াখানার কর্মী

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) এপ্রিল ১৫, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১০:২৪ পূর্বাহ্ন

বিষধর সাপের কামড়ে যুক্তরাষ্ট্রের সান ডিয়েগো চিড়িয়াখানার একজন কর্মচারীকে সোমবার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আফ্রিকান জঙ্গলে থাকা সাপের দেখাশোনা করার সময় তাকে কামড়ে দেয় একটি সাপ। এর বৈজ্ঞানিক নাম আথেরিস স্কুয়ামিজেরা। কিন্তু ভয়ের কথা হলো এই সাপের বিষকে নিষ্ক্রিয় করার কোনো ওষুধ নেই। এর কামড়ে আক্রান্ত ব্যক্তি কয়েকদিনের মধ্যে মারা যান। তার রক্ত জমাট বেঁধে যায়, কিডনি নষ্ট হয়ে যায়, রক্তের প্রবাহ বিঘিœত হয়, মারাত্মক প্রদাহ দেখা দেয়, রক্তক্ষরণ হয় এবং টিস্যুগুলো মরে যায়। আমেরিকান কলেজ অব মেডিকেল টক্সিকোলজির রিপোর্টে বলা হয়েছে, এই সাপের কামড়ে শরীরের ভিতরে রক্তক্ষরণ হতে পারে অথবা মারাত্মক জ্বর হতে পারে। এ থেকে মানুষের মৃত্যু হতে পারে।
এ খবর দিয়েছে অনলাইন নিউ ইয়র্ক পোস্ট। চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ বলেছে, সাপে কামড়ানোর পর প্রোটোকল অনুযায়ী ওই স্টাফকে তাৎক্ষণিকভাবে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখানে তার শারীরিক অবস্থা মূল্যায়ন করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তার অবস্থা কি হয় তা জানতে চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ নিবিড় যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছে।
চিড়িয়াখানার একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, যদিও সান ডিয়েগো চিড়িয়াখানা বিষধর সাপের দেখাশোনা করে থাকে। তবে এই সাপটি ছিল বিরল। তাকে আটকে রাখা হয়েছিল এমন অবস্থায় যেখান থেকে সে বেরিয়ে আসতে পারবে না। ওদিকে ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক বলেছে, এই সাপ পাওয়া যায় পশ্চিম ও মধ্য আফ্রিকার বিভিন্ন অংশে। এর বিষ শরীরে প্রবেশ করলে কয়েকদিনের মধ্যে মানুষ মারা যায়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর