× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৫ মে ২০২১, শনিবার, ২ শওয়াল ১৪৪২ হিঃ

বাংলাদেশ হাইকমিশনের পদক্ষেপকে নীতিমালা বহির্ভুত দাবি মালয়েশিয়ার

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) এপ্রিল ১৫, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৫:৪৮ অপরাহ্ন

সম্প্রতি 'চাকরির খোঁজ' নামে একটি কর্মসংস্থান ওয়েবসাইট চালু করে মালয়েশিয়ায় থাকা বাংলাদেশি হাই কমিশন। এটিকে নিয়ম বহির্ভুত দাবি করে হাই কমিশনের এমন পদক্ষেপ নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছে মালয়েশিয়ার মানব সম্পদ মন্ত্রণালয়। বৃহস্পতিবার দেয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়, গত ৮ এপ্রিল বাংলাদেশ হাই কমিশনের এমন পদক্ষেপে আমরা বিস্মিত এবং হতবাক। এমন ওয়েবসাইট চালু করা মালয়েশিয়ার নীতিমালা বহির্ভুত। এটি চালুর আগে দেশটির সঙ্গে কোনো ধরণের আলোচনাও করা হয়নি বলে জানানো হয়।
মালয়েশিয়ার মানব সম্পদ মন্ত্রণালয় দাবি করেছে, এমন পদক্ষেপের ফলে স্থানীয় নিয়োগকর্তারা দ্বিধাগ্রস্থ হয়ে পড়বে এবং মালয়েশিয়ার নাগরিকদের চাকরির বাজার সঙ্কুচিত করবে। মন্ত্রী দাতুক সেরি এম সারাভানান বলেন, আমি হতভম্ব এবং অবাক হয়েছি। এমন ওয়েবসাইট চালুর আগে বাংলাদেশ হাই কমিশন আমাদের সঙ্গে আলোচনা করেনি, এমনকি আমাদের জানায়ওনি।
স্থানীয় নীতিমালার বিরুদ্ধে যায় এমন পদক্ষেপ নেয়া একটি হাই কমিশনারের জন্য অযৌক্তিক। এরইমধ্যে মালয়েশিয়া সরকারের এমন একটি ওয়েবসাইট রয়েছে। সেখানে দেশের মধ্যে থাকা ফাঁকা পদগুলোর সন্ধান দেয়া রয়েছে। তারপরেও বাংলাদেশ হাই কমিশনের এমন সিদ্ধান্তকে আমি গুরুত্বের সঙ্গে নিচ্ছি। তাদের এই পদক্ষেপ স্থানীয় নিয়োগদাতাদের দ্বিধাগ্রস্থ করবে।
চাকরির খোঁজ নামের যে ওয়েবসাইটটি বাংলাদেশ হাই কমিশন খুলেছে এর উদ্দেশ্য হচ্ছে, মালয়েশিয়ার নিয়োগদাতারা যাতে তাদের প্রয়োজন অনুযায়ী সঠিক শ্রমিক নিয়োগ দিতে পারেন। গত ৮ই এপ্রিল একটি ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এর উদ্বোধন করা হয়। মন্ত্রী সারাভানান আরো জানান, ১৯৮১ সালের বেসরকারি নিয়োগ সংস্থা আইন অনুযায়ী, মালয়েশিয়ায় বিদেশী শ্রমিকদের নিয়োগ ব্যবস্থাপনা করবে শুধু দেশটির শ্রম মন্ত্রণালয় থেকে অনুমোদন পাওয়া সংস্থাগুলো। কিন্তু বাংলাদেশ হাই কমিশনের এমন ওয়েবসাইট চালু মালয়েশিয়ায় অবৈধ শ্রমিক বৃদ্ধির সুযোগ সৃষ্টি করেছে। মালয়েশিয়ার নিয়ম অনুযায়ী যে কোনো খাতে শ্রমিক নিয়োগের ক্ষেত্রে আগে স্থানীয়দের অগ্রাধিকার নিশ্চিত করতে হয়। এরকম পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ হাই কমিশন যে পোর্টাল চালু করেছে তা যথাযথ সিদ্ধান্ত ছিল না। এরমধ্য দিয়ে মালয়েশিয়া সরকারের বিদেশি শ্রমিক ব্যবস্থাপনাকে অবমূল্যায়ন করা হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর