× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৪ মে ২০২১, শুক্রবার, ১ শওয়াল ১৪৪২ হিঃ

পার্লামেন্ট অধিবেশনে সম্পূর্ণ নগ্ন এমপি

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(৪ সপ্তাহ আগে) এপ্রিল ১৬, ২০২১, শুক্রবার, ১২:৩১ অপরাহ্ন

হাউজ অব কমন্সের জুম কনফারেন্স চলছে। এরই মধ্যে কানাডার একজন এমপি হাজির হলেন ক্যামেরার সামনে। তাকে দেখে সবার মুখ লজ্জায় লাল হয়ে গেল। কারণ, তিনি এ সময় ছিলেন একেবারে নগ্ন। তার শরীরে কোনোই পোশাক ছিল না। তিনি লিবারেল এমপি উইলিয়াম অ্যামোস। পরে এমন অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন তিনি। এ খবর দিয়েছে অনলাইন এনডিটিভি।
এতে বলা হয়, যখন পার্লামেন্টের অধিবেশন চলছে। তখন আকস্মিকভাবে তার ল্যাপটপের ক্যামেরা চালু হয়ে যায়। ভার্চ্যুয়াল এই অধিবেশনে তাকে দেখা যায় একেবারে নগ্ন। এ জন্য ৪৬ বছর বয়সী ওই এমপি বুধবার এক টুইটে ক্ষমা চেয়ে বলেন, আমি আসলেই ভয়াবহ এক ভুল করে ফেলেছি। অবশ্যই এ জন্য আমি বিব্রত। জগিং শেষ করে ফিরে যখন পোশাক পরিবর্তন করছিলাম, তখন দুর্ঘটনাবশত ল্যাপটপের ক্যামেরা ওপেন হয়ে গিয়েছিল। এ জন্য পার্লামেন্টে আমার সব সহকর্মীর কাছে আন্তরিকভাবে ক্ষমা চাইছি। সততার সঙ্গে বলছি, এটা ছিল একটি ভুল। আর কখনো এমনটি হবে না।
উইলিয়াম অ্যামোস কুইবেক থেকে নির্বাচিত এমপি। তিনি এদিন ওই ভার্চ্যুয়াল অধিবেশনে কোনো বক্তব্য রাখেননি। ওই সময় পার্লামেন্টে প্রশ্নোত্তর পর্ব চলছিল। তিনি যদি ইচ্ছাকৃতভাবে নগ্ন থাকেন তাহলে হাউজ অব কমন্সের নির্দেশনা ভঙ্গ করে থাকতে পারেন। সেখানে ‘রুলস অব অর্ডার অ্যান্ড ডেকোরাম’ অনুযায়ী, পার্লামেন্ট অধিবেশনের সময় কোনো সুনির্দিষ্ট ড্রেসকোড নেই। তবে বক্তব্য রাখার সময় সেখানে ন্যূনতম একটি মানের পোশাক পরার বিধান আছে। তা হলো একটি জ্যাকেট, শার্ট এবং টাই পরতে হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর