× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৩ মে ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৩০ রমজান ১৪৪২ হিঃ

বালাগঞ্জে জন্ম নিলো অদ্ভুত আকৃতির এক শিশু

বাংলারজমিন

বালাগঞ্জ (সিলেট) প্রতিনিধি
১৭ এপ্রিল ২০২১, শনিবার

 চারটি মেয়ে জন্ম দেয়ার পর একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেন সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার পৈলনপুর গ্রামের হতদরিদ্র সেলিম মিয়ার স্ত্রী রহিমা বেগম। জন্মের পর দেখা যায় শিশুটির অঙ্গ স্বাভাবিক থাকলেও নাড়িভুঁড়ি পেটের বাহিরে রয়েছে। ২৮শে মার্চ রাতে মৌলভীবাজার শহরের একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে স্বাভাবিকভাবেই অদ্ভুত এই শিশুটির জন্ম হয়। ডেলিভারির পর চিকিৎসকরা শিশুটিকে দ্রুত সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল হয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য শিশুটিকে সিলেট শহরের জালালাবাদ রাগিব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শিশুটির স্বজন মিজানুর রহমান বলেন, ১১ই এপ্রিল চিকিৎসকরা দ্বিতীয় দফায় শিশুটির পেটে অস্ত্রোপচার করেন। এরপর তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (এনআইসিইউ) রাখা হয়েছে। এখনো তার কোনো উন্নতি বোঝা যাচ্ছে না।
এর আগে প্রথম দফায় অস্ত্রোপচার করার পর ৪ দিন তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখা হয়েছিল। জালালাবাদ রাগিব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু সার্জারি বিভাগের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, শিশুটির পেটে জন্মগত ত্রুটি রয়েছে, এটি খুবই রেয়ার। তার নাড়িভুঁড়ি পেটের বাহিরে থাকায় ইতিমধ্যে দুই দফায় অস্ত্রোপচার করা হয়েছে, প্রয়োজনে আরো অস্ত্রোপচার করা লাগতে পারে। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের সমন্বয়ে একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করে শিশুটিকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। আমরা আশাবাদি শিশুটি স্বাভাবিক হয়ে উঠবে তবে দেড় থেকে দুই মাস পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর