× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১১ মে ২০২১, মঙ্গলবার, ২৮ রমজান ১৪৪২ হিঃ

রমজানের কদর করা জরুরি

শেষের পাতা

মাওলানা এমএ করিম ইবনে মছব্বির
১৭ এপ্রিল ২০২১, শনিবার

আজ রমজানের চতুর্থ দিন। করোনাভাইরাসকালীন পৃথিবীতে আমরা যারা এখনো বেঁচে আছি, মহান আল্লাহ্‌র কাছে শুকরিয়া জ্ঞাপন করছি। আমরা আল্লাহ্‌র অশেষ রহমতে পবিত্র মাহে রমজান পেয়েছি সেজন্য মহান আল্লাহ্‌র দরবারে অগণিত শুকরিয়া। মহান আল্লাহ্‌ পাক রাব্বুল আলামীন পবিত্র কুরআনুল কারিমে ঘোষণা করেন যে, তোমরা মহান আল্লাহ্‌র শুকরিয়া আদায় করো, যদি তোমরা একমাত্র তারই ইবাদত করে থাকো (সূরায়ে বাক্বারা, আয়াত-১৭২)। বিগত রমজান মাসে অনেকেই আমাদের সঙ্গে রমজানের রোজা পালন করেছেন, কিন্তু আজ তাদের মধ্যে অনেকেই আমাদের মাঝে নেই। কবরের বাসিন্দা হয়ে গেছেন। আমরাও কেউ আগে কেউ পিছে   পৃষ্ঠা ২ কলাম ৪
 একদিন কবরের নাগরিক হয়ে যাবো। সুতরাং পবিত্র মাস রমজানের কদর করা খুবই জরুরি।
একদা এক প্রাচীন পারসিয়ান যাজকের ছেলে রমজান মাসে দিনের বেলা পানাহার করছিলো। যখন যাজক দেখলেন যে, তার পুত্র রমজান মাসে দিনের বেলা প্রকাশ্যে খাবার খাচ্ছে তখন ওই যাজক তার ছেলের ওপর রাগান্বিত হলেন। তিনি তার ছেলেকে ধমক দিয়ে বললেন, তোমার কি লজ্জা হয় না। এটা মুসলমানদের পবিত্র মাস রমজান। তারা দিনের বেলা রোজা রাখে, আর তুমি দিনের বেলায় প্রকাশ্যে খাবার খাচ্ছো। ওই যাজকের পাশেই বসবাস করতেন এক বুজুর্গ ব্যক্তি।  যাজক একসময় মৃত্যুবরণ করেন।  কিছুদিন পর ওই বুজুর্গ স্বপ্নে দেখেন যে, ওই যাজক জান্নাতের মাঝে। তিনি খুব অবাক হলেন এবং তাকে স্বপ্নের মাঝেই জিজ্ঞেস করলেন যে, আপনি তো পারসিক যাজক ছিলেন। অথচ আমি আপনাকে জান্নাতের মাঝে বিচরণ করতে দেখছি। যাজক উওরে বললেন, একদিন আমার ছেলে রমজান মাসে প্রকাশ্যে খাচ্ছিলো আর আমি পবিত্র রমজান মাসের আদব রক্ষার্থে তাকে তিরস্কার করে ছিলাম। মহান আল্লাহ্‌ পাকের নিকট আমার এই আমল এতই পছন্দনীয় হলো যে, আমার মৃত্যুর সময় কালিমায়ে তাইয়্যেবা নছীব হয়ে গেল অর্থাৎ আমি মৃত্যুর আগেই মুসলমান হয়ে গেলাম। এবং আমি মুসলমান হয়ে মৃত্যুবরণ করার কারণেই জান্নাতের স্বাদ অনুভব করছি (তথ্যসূত্র নুজহাতুল মাজালিছ খণ্ড এক, পৃষ্ঠা, ১৯১)।  কেবল পবিত্র রমজান মাসের আদব প্রদর্শনের কারণে এক খ্রীষ্টান ধর্ম যাজকের ঈমান নছীব হলো অর্থাৎ তিনি ইসলাম ধর্ম কবুল করে মারা গেলেন। যদি রমজান মাসে কোনো ওজর ছাড়া কেউ রোজা না রাখে এবং প্রকাশ্য পানাহার করে তখন সে ফাছিক্ব বলে গণ্য হবে। সে ইসলামী নির্দেশনাবলীর অবজ্ঞাকারী হিসেবে সাব্যস্ত হবে (ফতোয়ায়ে শামী, খণ্ড নম্বর ২, পৃষ্ঠা নম্বর ১৫১)।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর