× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ৯ মে ২০২১, রবিবার, ২৬ রমজান ১৪৪২ হিঃ

লকডাউনের ফাঁদে ফেলে ব্যবসায়ীকে

দেশ বিদেশ

অপহরণস্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী থেকে
১৮ এপ্রিল ২০২১, রবিবার

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় সারা দেশে চলছে ‘সর্বাত্মক লকডাউন’। এই লকডাউনের মধ্যে দোকান খুলেছিলেন মুদি দোকানি মো. আবদুল্লাহ (৩২)। লকডাউনে দোকান খোলায় প্রতারক চক্র পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) সদস্য পরিচয়ে তাকে অপহরণ করে নিয়ে গিয়েছিল। গত বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার গোগ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এদিকে অপহরণের সঙ্গে জড়িত ভুয়া ডিবি পুলিশের এক সদস্যকে মাইক্রোবাসসহ আটক করেছে কাশিয়াডাঙ্গা থানা পুলিশ। ওই দিন রাত ১০টার দিকে কাশিয়াডাঙ্গা এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। আটক ব্যক্তির নাম মো. মাসুদ হোসেন। সে নগরীর বোয়ালিয়া থানার বড়কুঠি গ্রামের মো. আমির হোসেনের ছেলে।

পুলিশের মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুসের পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মো. আবদুল্লাহ (৩০) নামের এক ব্যক্তি গত বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ৯টার দিকে গোদাগাড়ী থানার গোগ্রাম পুজাতলা মোড়ে তার নিজ মুদি ও বিকাশ এজেন্টের দোকানে বসে ক্যাশের হিসাব-নিকাশ করছিলেন। এ সময় একটি মাইক্রোবাসে ৪ জন এসে নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে লকডাউনের সময় দোকান খোলার অপরাধে তার হাতে হ্যান্ডকাফ লাগিয়ে দেয়। তার দোকানে থাকা দুই লাখ টাকা নিয়ে তাকে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে মাইক্রোবাসে তুলে রাজশাহীর দিকে রওনা দেয়। পথিমধ্যে তাকে ব্যাপক মারধর এবং ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। কাশিয়াডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম মাসুদ পারভেজ জানান, এই ঘটনায় কাশিয়াডাঙ্গা থানায় একটি নিয়মিত মামলা রুজু হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত আসামির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। ছিনতাই হওয়া টাকা উদ্ধার ও অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর