× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১১ মে ২০২১, মঙ্গলবার, ২৮ রমজান ১৪৪২ হিঃ

কিট জালিয়াত চক্রের নয় সদস্য রিমান্ডে

শেষের পাতা

কোর্ট রিপোর্টার
১৮ এপ্রিল ২০২১, রবিবার

করোনা শনাক্তের নকল কিট ও রি-এজেন্ট জালিয়াতির চক্রের তিন প্রতিষ্ঠানের গ্রেপ্তারকৃত ৯ জনের তিনদিন রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল তাদের ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। আদালতে মোহাম্মদপুর থানার বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তাদের ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম মোহাম্মদ জসিম তাদের তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। যাদের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছে তারা হলেন- বায়োল্যাব ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেডের স্বত্বাধিকারী মো. শামীম মোল্লা (৪০), ব্যবস্থাপক মো. শহীদুল আলম (৪২), প্রধান প্রকৌশলী আবদুল্লাহ আল বাকী ছাব্বির (২৪), অফিস সহকারী মো. জিয়াউর রহমান (৩৫), হিসাবরক্ষক মো. সুমন (৩৫), অফিস ক্লার্ক ও মার্কেটিং অফিসার জাহিদুল আমিন পুলক (২৭), সার্ভিস ইঞ্জিনিয়ার মো. সোহেল রানা (২৮), এক্সন টেকনোলজিস্ট অ্যান্ড সার্ভিসেস লিমিটেডের এমডি মো. মাহমুদুল হাসান (৪০), হাইটেক হেলথ কেয়ার লিমিটেডের এমডি এস এম মোস্তফা কামাল (৪৮)। এই তিন প্রতিষ্ঠান করোনা, ক্যানসার, এইডস, জন্ডিস, ডায়াবেটিস ও নিউমোনিয়া রোগের টেস্ট কিটের মেয়াদ বাড়িয়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে সরবরাহ করতো।  এমন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার বিকাল থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের প্রতিনিধিদের সহযোগিতায় রাজধানীর মোহাম্মদপুরের লালমাটিয়া এলাকায় অবস্থিত বায়োল্যাব ইন্টারন্যাশনাল ও তাদের সহযোগী প্রতিষ্ঠান বনানী এলাকায় অবস্থিত এক্সন টেকনোলজি অ্যান্ড সার্ভিস লি. এবং হাইটেক হেলথকেয়ার লি. নামের তিনটি প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালিয়ে এ চক্রের ৯ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
based biplob
১৮ এপ্রিল ২০২১, রবিবার, ১১:০১

Derect crosfiree

সাইফুল ইসলাম ফিরোজ
১৭ এপ্রিল ২০২১, শনিবার, ৩:১৪

এরা যদি সত্যিই কিট জালিয়াতির সাথে জড়িত হয়ে থাকে এদেরকে ফায়ারিং স্কোয়াডে নেওয়া উচিৎ।।।

অন্যান্য খবর