× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১১ মে ২০২১, মঙ্গলবার, ২৮ রমজান ১৪৪২ হিঃ
মুখ্যমন্ত্রীর কঠোর হুঁশিয়ারি

দিল্লিতে হাসপাতালে বেড, অক্সিজেন ও রেমডেসিভির সঙ্কট

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(৩ সপ্তাহ আগে) এপ্রিল ১৮, ২০২১, রবিবার, ১২:১২ অপরাহ্ন

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল কঠোর এক হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, তার শহরে দ্রুত শেষ হয়ে যাচ্ছে হাসপাতালের বেড, অক্সিজেন এবং জীবন রক্ষাকারী ওষুধ রেমডেসিভির। শনিবার ২৪ ঘন্টায় সেখানে নতুন করে কমপক্ষে ২৪ হাজার মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর তিনি এই হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। এই রেকর্ড অনাকাঙ্খিত। এ খবর দিয়েছে অনলাইন এনডিটিভি। তিনি বলেছেন, করোনায় আক্রান্ত হওয়ার শতকরা হার এখন পৌঁছে গেছে ২৪ ভাগে। এর অর্থ হলো প্রতি চারজন মানুষকে পরীক্ষা করে তার মধ্যে একজনের করোনা ভাইরাস পজেটিভ পাওয়া যাচ্ছে। কেজরিওয়াল এ অবস্থাকে ভীষণ গুরুত্বর এবং ভয়াবহ বলে বর্ণনা করেছেন।
তিনি বলেন, আক্রান্তের সংখ্যা বাস্তবেই দ্রুততার সঙ্গে বাড়ছে। কয়েকদিন আগে সবকিছু দৃশ্যত নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে মনে হয়েছিল। এ জন্য এখন সবকিছুতে সঙ্কট দেখা দিয়েছে। এখন এই করোনা সংক্রমণ যে গতিতে বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে কেউ জানেন না এর পিক কোথায় গিয়ে শেষ হবে। তিনি আরো বলেন, যেকোনো স্বাস্থ্য বিষয়ক অবকাঠামোর সীমাবদ্ধতা থাকে। তারপরও সরকার বেডসংখ্যা বাড়ানোর জন্য সর্বোত্তম চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আশা করছি আগামী দুই/চার দিনের মধ্যে আমরা আরো ৬ হাজার বেড যোগ করতে সক্ষম হবো।
উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের ভয়ঙ্কর বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে শনিবার থেকে ভারতের অন্য কিছু শহরের মতো রাজধানী নয়া দিল্লিতে চলছে কারফিউ। এরই মধ্যে ভারতের প্রতি ২৪ ঘন্টায় করোনা সংক্রমণ ২ লাখ ৩০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। ফলে বহু রাজ্য ওষুধ ও হাসপাতালে বেডের সঙ্কটে ভুগছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর