× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৩ মে ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৩০ রমজান ১৪৪২ হিঃ

উল্লাপাড়ায় ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ

বাংলারজমিন

উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি
১৯ এপ্রিল ২০২১, সোমবার

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ইউপি চেয়ারম্যান আল আমিন সরকারের বিরুদ্ধে একই পরিষদের ৪ জন সদস্য অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ এনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন। এ ব্যাপারে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। জানা যায়, উল্লাপাড়া উপজেলার পূর্ণিমাগাঁতী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আল আমিন সরকারের বিভিন্ন দুর্নীতি, অনিয়ম, স্বেচ্ছাচারিতাসহ নানা বিষয় নিয়ে ওই পরিষদের ৪ জন সদস্য আলাদা আলাদাভাবে লিখিত অভিযোগ করেছেন। এদের মধ্যে ৩ জন সংরক্ষিত মহিলা সদস্য মোছা. মাজেদ খাতুন, মোছা. বিউটি খাতুন ও মোছা. কুলছুম খাতুন পৃথক পৃথকভাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অপরদিকে ২নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. ইদ্রিস আলী সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগে বলা হয়, চেয়ারম্যান আল আমিন সরকারের বিরুদ্ধে সরকার প্রদত্ত সুবিধাদি প্রকৃত দুঃস্থ ও গরিবদের মধ্যে না দিয়ে ৩-৪ হাজার টাকা করে ঘুষ নিয়ে যারা প্রাপ্য নয় তাদেরকে ভিজিডি, প্রতিবন্ধী ও বয়স্ক ভাতার কার্ড দেয়া হচ্ছে। তার মনোনীত ভিজিডি কার্ডধারীদের চাল বিতরণ না করে অন্যত্র বিক্রি করে দিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। এছাড়াও এলজিএসপি প্রকল্প তার একক সিদ্ধান্তে বাস্তবায়নে দুর্নীতিসহ গত ৫ বছরে ইউনিয়নে বরাদ্দ ১ শতাংশ টাকা ও জনগণের কাছ থেকে আদায়কৃত ট্যাক্সের টাকার কোনো কাজ না করে আত্মসাৎ করেন।
মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে দু’জন দুঃস্থ লোককে ঘর দেয়ার কথা বলে তাদের কাছ থেকে ৫৫ হাজার টাকা নিলেও ঘর দেয়া হয়নি। টাকাও ফেরত দেননি। টাকা চাইতে গেলে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেন চেয়ারম্যানের পোষা বাহিনী। ২নং ওয়ার্ডের মেম্বার মো. ইদ্রিস আলী তার সম্মানি ভাতা পাওনা ১ লাখ ৬৬ হাজার টাকা বারবার তাগিদ দিয়েও পাননি। উল্টা মারপিট ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করার অভিযোগ দায়ের করেছেন। সংরক্ষিত ওয়ার্ডের সদস্য মোছা. মাজেদা খাতুন একই ধরনের অভিযোগ ছাড়াও আন্তঃইউনিয়ন ফুটবলের জন্য তার কাছ থেকে ধার বাবদ নেয়া ১০ হাজার টাকা দু’বছরে ফেরত না দেয়ার অভিযোগ দায়ের করেছেন। এছাড়াও গত ৫ বছরে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে প্রাপ্য মাসিক সম্মানি ভাতার টাকা দেয়া হয়নি বলে অভিযোগ দায়ের করেন ওই ৪ সদস্য। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেওয়ান মওদুদ আহমেদ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. নাহিদ হাসান খানকে তদন্তের দায়িত্ব দিয়েছেন। অভিযোগের ব্যাপারে চেয়ারম্যান আল আমিন সরকার বলেন, আমার বিরুদ্ধে ইউপি সদস্যদের আনা অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট। তারা নিজেদের ভুল বুঝতে পেরে পরবর্তীতে অভিযোগ প্রত্যাহার করে নেয়ার কথা দিয়েছে। উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, ইউপি সদস্যদের অভিযোগের ভিত্তিতে এক সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির রিপোর্ট মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর