× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ৯ মে ২০২১, রবিবার, ২৬ রমজান ১৪৪২ হিঃ

সিলেটে শ্রদ্ধায় তারাপুর গণহত্যার শহীদদের স্মরণ

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে
১৯ এপ্রিল ২০২১, সোমবার

সিলেটের তারাপুর গণহত্যা দিবস উপলক্ষে তারাপুর চা-বাগানে নির্মিত শহীদ বেদিতে শহীদ স্মৃতিস্তম্ভে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফুলেল শ্রদ্ধায় স্মরণ করা হলো ১৯৭১ সালের ১৮ই এপ্রিল পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর গুলিতে নির্মমভাবে নিহত ৩৯ জনকে। একাত্তরের এই দিনে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী ও তাদের দোসর রাজাকাররা তারাপুর চা-বাগানের স্বত্বাধিকারী বৈকুণ্ঠ চন্দ্রগুপ্ত পরিবারের ৫ জন প্রাপ্তবয়স্ক সদস্যসহ চা-বাগানের চিকিৎসক, স্টাফ ও চা-শ্রমিকসহ ৩৯ জনকে হত্যা করে। সেদিন সকাল ১১টায় কাজের জন্য আইডি কার্ড তৈরির কথা বলে তাদেরকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল তারাপুর চা-বাগান সংলগ্ন মালিচড়া চা-বাগানের পাশে। সবাইকে লাইন ধরে দাঁড় করিয়ে গুলি করে হত্যা করা হয় সেদিন। একাত্তরের এই দিনে গণহত্যার শিকার সবাইকে স্মরণ করা হয় প্রতি বছরের ১৮ই এপ্রিল। গতকাল সকাল সাড়ে ১০টায় করোনাভাইরাসের কারণে সরকারের স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে স্মৃতিস্তম্ভে শহীদ পরিবার ও শ্রী শ্রী রাধাকৃষ্ণ জিউ দেবোত্তর সম্পত্তি ব্যবস্থাপনা কমিটি শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের মাধ্যমে দিবসটি পালন করেন। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে প্রয়াত শহীদদের আত্মার শান্তি কামনা ও করোনাভাইরাসের কারণে মৃত্যুবরণকারী সবার আত্মার শান্তি কামনা করে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। ব্যবস্থাপনা কমিটির পক্ষে সম্পাদক সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর শান্তনু দত্ত সনতু ও শহীদ গুপ্ত পরিবারের ডা. পংকজ গুপ্তের পক্ষে রজত কান্তি গুপ্ত ও চা শ্রমিক শহীদ পরিবারের পাঁচজন সদস্য শ্রদ্ধা নিবেদনে উপস্থিত ছিলেন।
এ সময় বাগানের কর্মকর্তাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেনÑ তারাপুর চা-বাগানের সহকারী ব্যবস্থাপক রিংকু চক্রবর্তী, বড় বাবু বিজয় কান্তি দে, মাহমুদ রেজা, পিনাক পানি বিশ্বাস, শিপা দেব, জহির চৌধুরী, পঞ্চায়েত কমিটির সভাপতি চৈতন্য মুদি, সাধারণ সম্পাদক সুনিল মুদি, শহীদ পরিবারের সদস্য মন্টু মুদি, যমুনা মুদি, পরিমল হাওলাদার, নিশি রায়, রঞ্জন মুদি প্রমুখসহ বাগানের শ্রমিক কর্মচারীরা।
১৮ই এপ্রিল শহীদদের নামের তালিকা: বাগানের স্বত্বাধিকারী গুপ্ত পরিবারের সদস্য রবীন্দ্রনাথ গুপ্ত, রাজেন্দ্র লাল গুপ্ত, রজত গুপ্ত, জহর লাল গুপ্ত, রঞ্জিত কুমার গুপ্ত, বাগানের চিকিৎসক কৃতীশ চন্দ্র দে, নরেশ দেব, নরেশ চক্রবর্তী, নারায়ণ চক্রবর্তী, নবীরাম, মহেন্দ্র পাল, দুরগেশ দাস, মহেন্দ্র কড়ামুদি, লচমন করামুদি, পলেশ কড়ামুদি, হরেন্দ্র কড়ামুদি, পূরণ কড়ামুদি, মথুরা কড়ামুদি, চূনী কড়ামুদি, মিটকু কড়ামুদি, জগন্নাথ কড়ামুদি, রসই কড়ামুদি, নিমাই কড়ামুদি, লক্ষীন্দর ঘাটয়ার, লুবিয়া ঘাটয়ার, সিকিন্দর ঘাটয়ার, গপেশ ঘাটয়ার, দুক্কু ঘাটয়ার, অতুল ঘাটয়ার, সুরেন্দ্র ভূমিজ, দশরত ভূমিজ, ভরত ভূমিজ, ফটিক হালদার, বরদা হালদার, যোগেশ^র হালদার, অমূল্য হালদার, ভরত বল্লব, বলাই ভূমিজ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর