× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৪ মে ২০২১, শুক্রবার, ১ শওয়াল ১৪৪২ হিঃ

শিবচরে সংঘর্ষে বৃদ্ধ নিহত

বাংলারজমিন

শিবচর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি
২০ এপ্রিল ২০২১, মঙ্গলবার

শিবচরে  তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে  খবির শেখ (৬০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় পাঁচজন আহত হয়েছেন।
সোমবার (১৯ এপ্রিল) সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার কাঠালবাড়ি  ইউনিয়নের বাবু মোল্লার কান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত খবির শেখ ওই এলাকার মৃত হাছেন শেখের ছেলে।
পারিবারিক ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত কয়েকদিন আগে খবির শেখের চাচাতো ভাই সাজাহান শেখ ও তার  চাচাতো বোন হালিমার মধ্য পাটকাঠি ভাগাভাগি নিয়ে দ্বন্দ্ব  হয়। এ ঘটনায় গতকাল বিকেলে ওই ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড সদস্য সাইদ বেপারীর মধ্যস্থতায় শালিসি বৈঠক হয়। শালিসির শেষের দিকে নিহতের বাড়ির প্রতিবেশী ফজলু মাদবর ও খবির শেখের মধ্য কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে ফজলু মাদবর ও তার বাড়ির লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে খবির শেখের বাড়িতে এসে তাদের উপর হামলা করে।এসময় খবির শেখ (৬০), তাহমিনা (২৫),হোসনেয়ারা পাখি (৪৫),পারভেজ শেখে (৩৫), জসিম শেখে (৩৬),শান্ত (২৫), সিয়াম (১৮), নুরজাহান (৮০) আহত হয়। পরে আহতদের উদ্ধার করে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।তবে এদের মধ্যে খবির শেখের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজে হাসপাতাল, ফরিদপুরে প্রেরন করা হয়।সেখান থেকে ভোর রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য রেফার্ড করা হয়। সেখানে আজ মঙ্গলবার বেলা ১১ টার তার মৃত হয়।
তবে এ ঘটনায় রাতেই খবির শেখের  পক্ষে রাতেই ফজলু মাদবরসহ কয়েকজনকে আসামী করে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়।
নিহতের ছেলে পারভেজ বলেন, আমার বাবাকে ওরা মেরে ফেলেছে।
আমি ওদের ফাঁসি চাই।
নিহতের চাচাতো ভাই সাজাহান শেখ বলেন,  আমার বোনের সাথে পাটকাঠি ভাগাভাগি নিয়ে আমাদের মধ্য দ্বন্দ্ব হয়। পরে আমরা আমাদের মেম্বারের কাছে বিষয়টি জানলে তিনি গতকাল বিষয়টি মীমাংসা করে দেন। তবে বিচারের শেষের দিকে ফজলু মাদবর আর আমার চাচাতো ভাই খবির শেখের মধ্য কথা কাটাকাটি হলে ফজলু মাদবর ও তার ভাইয়েরা মিলে আমার ভাই সহ ৫/৬ জনকে কুপিয়ে আহত করে। আজ আমার ভাই ঢাকায় মারা যায়। আমি ওদের বিচার চাই।
শিবচর থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মিরাজ হোসেন বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় ওই এলাকায় পুলিশ পাঠানো হয়েছে। গত রাতে এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর