× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৪ মে ২০২১, শুক্রবার, ১ শওয়াল ১৪৪২ হিঃ

লঙ্কায় জয়ের আশায় মুমিনুল

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার
২১ এপ্রিল ২০২১, বুধবার

নেতৃত্ব পাওয়ার পর ৬ টেস্টের পাঁচটিতে হার দেখেছেন মুমিনুল হক সৌরভ। তাই শ্রীলঙ্কা সফর টেস্ট অধিনায়কের ভাগ্য নির্ধারণ করবে এমনটাই গুঞ্জন। এমনকি প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর টাইগারদের গুরু হিসেবে থাকাও নির্ধারণ হতে পারে এই টেস্ট সিরিজে। আজ ক্যান্ডির পাল্লেকেলে স্টেডিয়ামে প্রথম টেস্ট। এই টেস্টের জন্য গতকাল ঘোষণা হয়েছে ১৫ সদস্যের  বাংলাদেশ দল। প্রায় দেড়বছর পর দেশের বাইরে টেস্ট। দলের ক্রিকেটারদের মধ্যেও আছে অস্বস্তি। তবে অধিনায়কের ভাবনাতে খেলার বাইরে অন্য কোনো কিছুই নেই।
এমনকি তার কোনো চাপও নেই বলে জানালেন ম্যাচপূর্ব ভার্চ্যুয়াল সংবাদ সম্মেলনে। মুমিনুল বলেন, ‘আমরা এখানে এসেছি ম্যাচ জেতার জন্য। পুরোপুরি চেষ্টা করবো ম্যাচ জেতার। অবশ্যই শ্রীলঙ্কা ভালো অবস্থানে আছে। আমরা শেষ দুইটা টেস্ট ভালো খেলতে পারিনি। কিন্তু আগেও বলেছি- ক্রিকেটে অতীত নিয়ে চিন্তা করে লাভ নেই। যদি প্রসেস ঠিক থাকে, ৫ দিন ভালো খেলি ইনশাআল্লাহ্‌ জয় পাবো।’
২০০২ থেকে এখন পর্যন্ত শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৯ টেস্ট সিরিজ খেলেছে বাংলাদেশ দল। কিন্তু এখন পর্যন্ত একটিতেও জয়ের দেখা মিলেনি। তবে একটি ড্র আছে। ২০১৭ তে লঙ্কার মাটিতে শততম টেস্ট জিতে ১-১ এ সিরিজ ড্র করেছিল টাগাররা। শ্রীলঙ্কার মাটিতে খেলা ৫ টেস্ট সিরিজের মধ্যে সাফল্য বলতে এটাই। ওই জয়ই মুমিনুলের দলের জন্য এখন অনুপ্রেরণা। পরিসংখ্যান বলছে কঠিন প্রতিপক্ষের বিপক্ষেই জয়ের আশায় আছেন অধিনায়ক মুমিনুল হক। তাই স্পষ্ট করেই জানিয়ে দিলেন বাইরের কোনো কিছু নিয়ে তার এখন ভাবার সময় নেই। তিনি বলেন, ‘আমি শ্রীলঙ্কায় এসেছি, মাঠে নামবো, বোলার বল করবে, আমি ব্যাটিং করবো, আর আমার বোলাররা বল করবে, ওদের ব্যাটসম্যানরা ব্যাটিং করবে, আমাদের ফিল্ডাররা ফিল্ডিং করবে। আমরা আমাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলবো। আমি আসলে এসব (অধিনায়ক ও কোচের ভাগ্য নির্ধারণী এই সিরিজ) নিয়েই কনসার্ন। আপনি যেগুলো বললেন এগুলো নিয়ে কনসার্ন না। একজন পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে আমার কাছে মনে হয় এসব নিয়ে এত ভাবার দরকার নেই।’
২১ সদস্যের প্রাথমিক দল নিয়ে শ্রীলঙ্কায় টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের মিশনে গেছে বাংলাদেশ। এখন পর্যন্ত চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্ট তালিকাতে ৫ ম্যাচ খেলে কোনো পয়েন্ট যোগ করতে পারেনি মুমিনুলের দল। এবার শেষ সুযোগ লঙ্কানদের বিপক্ষে। অধিনায়ক নিজেও আত্মবিশ্বাসী। তিনি বলেন, ‘আত্মবিশ্বাস তো সবসময় আছে। ভালো আত্মবিশ্বাস আছে। আমি সবসময় বলি- আগে যা হয়ে গেছে এটা নিয়ে চিন্তা করতে পারবেন না কি হবে না হবে। ইতিবাচক কিছু থাকলে হয়তো নিতে পারেন। নতুন করে কালকে টেস্ট শুরু করবো, নতুন একটা দিন। নতুন দিনে আমারা প্রসেস ঠিক রাখার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ্‌।’ গতকাল লঙ্কা মিশনে ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে বিসিবি। যেখানে চার পেসার জায়গা করে নিয়েছেন। তার মানে একাদশও হবে পেস নির্ভর। এমনকি পাল্লেকেলের উইকেটে ঘাসও ইঙ্গিত দিচ্ছে ম্যাচে বড় ভূমিকা রাখতে হবে পেসারদের। তাই তাসকিন আহমেদ, আবু জায়েদ রাহী, এবাদত হোসেন ও শরিফুল ইসলামদের নিয়ে আক্রমণ সাজাবেন মুমিনুল। তিনি বলেন, ‘যারা আগে খেলেছে তারাই তো সবচেয়ে বেশি ডিপেন্ডেবল আমার কাছে মনে হয়। রাহী, এবাদত, তাসকিন। তারপর যদি বলেন শরিফুল। আমার কাছে মনে হয় ওরাই সবচেয়ে ডিপেন্ডেবল, যারা রেগুলার খেলছে।’
অন্যদিকে লঙ্কায় টেস্ট সিরিজের আগে টাইগারদের প্রস্তুতি নেয়ার খুব একটা সময় হয়নি। অধিনায়কও মানছেন প্রস্তুতির ঘাটতি আছে। কিন্তু একেবারেই তা খারাপ এমন নয়। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে থাকতেও বলে এসেছি- বলবো না খুব ভালো প্রস্তুতি। তবে এখনকার যে পরিস্থিতি সেই অনুযায়ী ভালো প্রস্তুতিই হয়েছে। প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছি, অনুশীলন করেছি। দেশের জন্য আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতে গেলে কিছু পরিস্থিতি আসবে যেগুলোতে আপনাকে মানসিক ও শারীরিকভাবে মানিয়ে নিতে হবে।’
ধারণা করা হচ্ছে একাদশে তিন পেসার খেলানো হবে। স্পিনার হিসেবে জায়গা পাবেন তাইজুল ইসলাম। আর খেলবেন ৬ ব্যাটসম্যান ও এক অলরাউন্ডার নিয়ে। ওপেনিংয়ে তামিম ইকবালের সঙ্গে হবে সাদমান ইসলাম। এরপর নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল, মুশফিকুর রহীম, লিটন দাস ও মোহাম্মদ মিঠুন থাকবেন দলের ব্যাটিং ভরসা হিসেবে। অন্যদিকে প্রতিপক্ষ লঙ্কা দলে অভিজ্ঞদের চেয়ে তরুণরাই টাইগারদের চ্যালেঞ্জ হতে পারে এমনটাই ধারণা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর