× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১১ মে ২০২১, মঙ্গলবার, ২৮ রমজান ১৪৪২ হিঃ

কোনো দলের এজেন্ডা বাস্তবায়ন হেফাজতের উদ্দেশ্য নয়: বাবুনগরী

দেশ বিদেশ

হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি
২১ এপ্রিল ২০২১, বুধবার

হেফাজতে ইসলামের আমীর আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী বলেছেন, কোনো দলের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করা হেফাজতে ইসলামের উদ্দেশ্য নয়। কেউ কেউ গুজব ছড়াচ্ছে, হেফাজতের উদ্দেশ্য অমুক দলকে ক্ষমতায় বসানো, নাউজুবিল্লাহ। আশাকরি, সরকার এ ধরনের গুজবে কান দেবেন না। তাছাড়া জ্বালাও-পোড়াও সহ যেকোনো ধরনের সংঘাতকে হেফাজতে ইসলাম হারাম মনে করে বলেও জানিয়েছেন তিনি। সোমবার রাতে এক ভিডিও বার্তায় জুনায়েদ বাবুনগরী এসব কথা বলেছেন।
ভিডিও বার্তায় সংঘর্ষের প্রেক্ষাপট বর্ণনা করে বাবুনগরী বলেন, গত ২৬শে মার্চ জুমাবার কিছু দুর্ঘটনা হয়ে গেছে। অথচ ২৬শে মার্চ হেফাজতে ইসলামের কোনো কর্মসূচি ছিল না। আমি নিজে হাটহাজারী মাদ্রাসায় ছিলাম না, দূরে সফরে ছিলাম।
এর আগে বায়তুল মোকাররমেও কিছু মুসল্লি আর ক্যাডারের মাঝখানে কিছু অঘটন হয়েছে। ক্যাডাররা মুসল্লিদের মারধর করেছে বায়তুল মোকাররম মসজিদের ভেতরে। এরপর হাটহাজারীর ঘটনা ঘটেছে। যার জন্য আমরা দুঃখিত। এর ধারাবাহিকতায় ‘আবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কিছু ঘটনা ঘটেছে। মোট কথা হলো- এসব ঘটনায় হেফাজতে ইসলামের কোনো কর্মসূচি ছিল না।’ তিনি বলেন, ‘ভারতের সরকারপ্রধান মোদি আসা উপলক্ষে আমাদের হেফাজতে ইসলামের কোনো কর্মসূচি ছিল না।’ হেফাজতে ইসলামের সর্বশেষ অবস্থান ব্যাখ্যা করে বাবুনগরী বলেন, হেফাজত একটি শান্তিপূর্ণ, অরাজনৈতিক দল। সমস্ত মুসল্লি, ওলামায়ে-ক্বেরাম হেফাজতের সদস্য। সমস্ত স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, ভার্সিটির ছাত্র-শিক্ষক হেফাজতের সদস্য। সবাইকে নিয়ে হেফাজত করছি। হেফাজতে ইসলামের উদ্দেশ্য আকিদা, ঈমান, দ্বীন, ইসলামকে রক্ষা করা। মুসলমানদের আকিদা, দ্বীন রক্ষা করা হেফাজতের উদ্দেশ্য। কেউ প্রমাণ দিতে পারবে না, অমুক পার্টির সঙ্গে হেফাজতের সম্পর্ক ছিল। পরিষ্কার ভাষায় বলেছি, কাউকে ক্ষমতায় বসানো, কাউকে ক্ষমতা থেকে নামানো হেফাজতে ইসলামের উদ্দেশ্য নয়। পরিষ্কার ভাষায় বলে আসছি- কোনো পার্টি বা দলের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করা হেফাজতে ইসলামের উদ্দেশ্য নয়। হেফাজতে ইসলামের উদ্দেশ্য হলো- আল্লাহ্‌র জমিনে রাসূলুল্লাহ্‌র এজেন্ডা বাস্তবায়ন করা।
হেফাজতের নেতাকর্মীদের হয়রানির অভিযোগ করে বাবুনগরী বলেন, প্রশাসন মাহে রমজানের মধ্যে আমাদের নেতাকর্মীদের, হক্কানি, ওলামায়ে-ক্বেরামসহ তৌহিদী জনতাকে হয়রানি করছে। গ্রেপ্তার করছে। হাটহাজারী মাদ্রাসার আশপাশের এলাকাবাসী কেউ ঘরে নাই। অথচ তারা এই আন্দোলনে ছিলই না। অবিলম্বে এই ধরপাকড়, গ্রেপ্তার, মিথ্যা মামলা, হয়রানি বন্ধ করুন। এ সময় আল্লামা মামুনুল হক, মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী, মাওলানা জুনায়েদ আল হাবিব, মুফতি সাখাওয়াত হোসাইন রাজী, মুফতি ইলিয়াস হামিদীসহ আটক হেফাজতের কয়েকজন নেতার নাম উল্লেখ করে তাদের মুক্তির দাবি জানান তিনি।
নেতাকর্মীদের উদ্দেশে হেফাজতের আমীর বলেন, ‘আপনারা সবুর করুন। কোনো সংঘাতে যাবেন না। বালা-মুছিবতে ধৈর্যধারণ করুন। আল্লাহ্‌র কাছে দোয়া করুন বসে বসে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
z Ahmed
২১ এপ্রিল ২০২১, বুধবার, ১১:২২

আপনার এজেন্ডা কি? আপনি কি চান? আপনি কি দুর্নীতি, মানুষ হত্যার বিরুদ্ধে, নির্দোষীদের অত্যাচারের বিরুদ্ধে, দিনের আলোকে অপরাধের বিরুদ্ধে লড়াই করেন? আমরা আপনার কাছ থেকে এরকম কিছু দেখতে পাই না।

অন্যান্য খবর