× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৪ মে ২০২১, শুক্রবার, ১ শওয়াল ১৪৪২ হিঃ

শান্ত’র ফিফটি, ফিরে গেলেন তামিম

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
২১ এপ্রিল ২০২১, বুধবার

দেশের বাইরে সবশেষ টেস্ট জয়ের স্মৃতি শ্রীলঙ্কাতেই। চার বছর আগে নিজেদের শততম টেস্টের সেই জয়ই কি অনুপ্রেরণা হয়ে ফিরে এলো? বুধবার পাল্লেকেলেতে শুরু হওয়া প্রথম টেস্টের প্রথম সেশনটা নিজেদের করে নিয়েছে বাংলাদেশ। মধ্যাহ্ন বিরতি পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ছিল ১ উইকেটে ১০৬ রান। মধ্যাহ্ন বিরতির পর দৃঢ়তার সঙ্গে ব্যাটিং শুরু করেন এই জুটি। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে দু’জন যোগ করেছেন ১৪৪ রান। শান্ত তুলে নেন ফিফটি। তবে ৯০ রান করে ফিরে যান তামিম। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ২ ইউকেটে ১৫২ রান।
শান্ত ৫১ ও অধিনায়ক মুমিনুল ০ রানে অপরাজিত রয়েছেন।
পাল্লেকেলের সবুজ উইকেটে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক। সকালের আর্দ্রতা কাজে লাগিয়ে দ্বিতীয় ওভারেই স্বাগতিকদের সাফল্য। বিশ্ব ফার্নান্দোর বলে এলবিউব্লিউয়ের ফাঁদে পড়েন সাইফ হাসান। মাত্র তৃতীয় টেস্ট খেলতে নামা এই ওপেনার ৬ বল খেলে কোনো রান করতে পারেননি।
আগের দুই টেস্টের ৩ ইনিংসেও সাইফ ফেরেন শূন্য রানে। এরপরের গল্পটা তামিম ইকবাল ও নাজমুল হোসেন শান্ত’র। শুরুতে সাইফ ফিরলেও তামিম ছিলেন সপ্রতিভ। ৫২ বলে পৌঁছান ফিফটিতে। টাইগার ওপেনারের এটি ২৯তম টেস্ট ফিফটি। আউট হওয়ার আগে ১৫ বাউন্ডারিতে ১০১ বলে ৯০ রান করেন তামিম। আগের তিন ইনিংসে মাত্র ১৫ রান করা শান্ত শুরু করেন ধীর গতিতে। দারুণ দৃঢ়তা দেখানো শান্ত’র ইনিংসে বাউন্ডারি ৭টি।

আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের এই ম্যাচে বাংলাদেশ একাদশে রয়েছেন ৩ পেসার ও ২ স্পিনার। তিন বছর পর টেস্ট একাদশে জায়গা পেয়েছেন তাসকিন আহমেদ। সর্বশেষ ২০১৭ সালের ২৮শে সেপ্টেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট খেলেছিলেন এই ডানহাতি পেসার। ক্যান্ডির পাল্লেকেলে স্টেডিয়ামে আগে টসে জেতা দলের হারের রেকর্ড নেই। এর আগে সাত টেস্টে টসে জেতা দল ম্যাচ জিতেছে চারটি। বাকি তিন ম্যাচ ড্র।

বাংলাদেশ একাদশ:
তামিম ইকবাল, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহীম, লিটন কুমার দাস (উইকেটরক্ষক), মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, আবু জায়েদ রাহী, তাসকিন আহমেদ ও এবাদত হোসেন।

শ্রীলঙ্কা একাদশ: দিমুথ করুনারাতেœ (অধিনায়ক), লাহিরু থিরিমান্নে, ওশাদা ফার্নান্দো, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস, নিশাঙ্কা পাথুম, ধনাঞ্জয় ডি সিলভা, নিরোশান ডিকওয়েলা (উইকেটরক্ষক), ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, সুরাঙ্গা লাকমল, লাহিরু কুমারা, বিশ্ব ফার্নান্দো।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর