× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৩ মে ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৩০ রমজান ১৪৪২ হিঃ

সিলেটে ট্রাভেলস ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে চেক ডিজঅনার মামলা

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে
২২ এপ্রিল ২০২১, বৃহস্পতিবার

সিলেট নগরীর মদিনা মার্কেট এলাকার এক ট্রাভেলস ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ৭ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে  চেক ডিজঅনার মামলা করা হয়েছে। সিলেটের অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সম্প্রতি এ মামলা করেন নগরীর তপোবন আবাসিক এলাকার ইব্রাহিম আলীর ছেলে আজমল আলী। অভিযুক্ত ট্রাভেলস ব্যবসায়ী ইয়াহইয়া বেগ মনোয়ার নগরীর পশ্চিম পাঠানটুল পল্লবী আবাসিক এলাকার ১নং রোডের ৩ নম্বর বাসার মৃত শরীফ বেগের ছেলে। তিনি মদিনা মার্কেটের গ্লোবাল স্টাডি কাউন্সেলিং বিডি নামের ট্রাভেলসের মালিক ও সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার জগদল ইউপি চেয়ারম্যান শিবলী বেগের ভাই। মামলার আগে বিষয়টি নিয়ে একাধিকবার নিষ্পত্তির উদ্যোগ নেয়া হলেও পাত্তা দেননি মনোয়ার বেগ। তার বিরুদ্ধে একাধিক ব্যক্তির কাছ থেকে একইভাবে টাকা ঋণ নিয়ে আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে। বাদি ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, পূর্ব পরিচয়ের সূত্রধরে মনোয়ার ২০২০ সালের ১১ই ফেব্রুয়ারি ব্যবসার কথা বলে ৭ লাখ টাকা ঋণ নেন আজমল আলীর কাছ থেকে। আজমল আলী ওই টাকা তার ভাই সমর রেজা সমরের কাছ থেকে এনে দেন।
এ নিয়ে তাদের মধ্যে একটি চুক্তিও হয়। কিন্তু চুক্তি অনুযায়ী টাকা ফেরত দেননি মনোয়ার বেগ। বার বার তাগাদা দেয়ার পর টাকার বিপরীতে ২০২০ সালের ২০শে সেপ্টেম্বর ডাচ্‌ বাংলা ব্যাংকের একটি চেক প্রদান করেন তিনি। কিন্তু তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে কোনো টাকা ছিল না। এ অবস্থায় গত ৮ই ফেব্রুয়ারি আবার চেকটি জমা দিয়ে ডিজঅনার করান আজমল আলী। মামলা করার আগে গত ১০ই ফেব্রুয়ারি তাকে উকিল নোটিশ প্রদান করে ৩০ দিনের মধ্যে টাকা প্রদানের কথা জানান আজমলের আইনজীবী। কিন্তু তাতেও সাড়া দেননি মনোয়ার। ফলে ১লা এপ্রিল আদালতে এনআই অ্যাক্টের ১৩৮ ধারায় মামলা করেন তিনি। এ প্রসঙ্গে বাদীর আইনজীবী মো. তানভীর তাহা জানান, লকডাউনের কারণে আদালতের কার্যক্রম বন্ধ থাকায় পরবর্তী আদেশ এখনো জানা যায়নি। কার্যক্রম শুরু হলে আদালত বিবাদীর বিরুদ্ধে সমন জারি করবেন। টাকা আত্মসাৎ প্রসঙ্গে জানতে একাধিকবার ফোন দিলেও রিসিভ করেননি মনোয়ার বেগ।  এ বিষয়ে আজমল আলীর ছোট ভাই আলী রাহাত রাজা জানান, টাকা নিয়ে একাধিকবার বৈঠক হয়েছে। বার বার তারিখ দিয়েও টাকা প্রদান করা হয়নি। তার ভাই চেয়ারম্যানও সময় নিয়েছেন। কিন্তু সমাধান করে দিতে পারেননি। আরো অনেকে মনোয়ারের কাছে টাকা পাবে বলে দাবি করেন রাজা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর