× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৬ মে ২০২১, রবিবার, ৩ শওয়াল ১৪৪২ হিঃ

ধোবাউড়ায় পাচারকালে কৃষি প্রণোদনার সার-বীজ জব্দ

বাংলারজমিন

ধোবাউড়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি
২২ এপ্রিল ২০২১, বৃহস্পতিবার

ময়মনসিংহের ধোবাউড়ায় কৃষকদের জন্য প্রণোদনার সার ও বীজ পাচার করার সময় জব্দ করেছে স্থানীয় জনতা। পরে কৃষি অফিসের কর্মকর্তারা ও পুলিশ গিয়ে ঘটনাস্থল থেকে বীজ ও সারগুলো উদ্ধার করেছে। প্রান্তিক কৃষকদের আউশ প্রণোদনা হিসেবে গত মঙ্গলবার ধোবাউড়া সদর ইউনিয়নের ১০৫ জন কৃষকের মাঝে প্রণোদনা বিতরণ করা হয়। ৫ কেজি করে বীজ ধান ও দুই প্রকারের ৩০ কেজি সার বিতরণ করা হয় প্রত্যেক কৃষকের মাঝে। কিন্তু বিকালে চারটি রিকশাভর্তি সার ও বীজ সরকারি গোডাউন থেকে উপজেলা সদর বাজারে যাওয়ার পথে আটক করে স্থানীয় জনতা। আটকের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান উপজেলা কৃষি অফিসার ও পুলিশ। চারটি রিকশা ভর্তি সার ও বীজ জব্দ করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে জব্দকৃত সার ও বীজ ফের কৃষি বিভাগের গোডাউনে নেয়া হয়।
এরমধ্যে ছিল ৩৬ প্যাকেট (প্রতি প্যাকেটে ১০ কেজি) বীজ ধান ও ২৮ বস্তা সার। উদ্ধার হওয়া ধান বীজ অন্তত ৭২ জন কৃষকের মধ্যে বিতরণ করার কথা ছিল। ২৮ বস্তা সার পেতেন ৩৬ জন কৃষক। কিন্তু প্রকৃত কৃষকদের মাঝে সার ও বীজ বিতরণ না করে অসাধু চক্রের মাধ্যমে সেগুলো পাচার করা হচ্ছিল বলে অভিযোগ করেন স্থানীয়রা। কৃষি অফিসার গোলাম সারোয়ার তুষার বলেন, অগ্রাধিকার তালিকা করেছেন ইউনিয়ন পরিষদ, তালিকায় প্রকৃত কৃষকের নাম আসলে এমনটি হওয়ার কথা ছিল না। ইউপি চেয়ারম্যান এরশাদুল হক জানান, তিনি অগ্রাধিকার তালিকায় স্বাক্ষরই করেননি। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাফিকুজ্জামান জানিয়েছেন ইতিমধ্যে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এদিকে কৃষকের প্রণোদনা পাচারের ঘটনায় গতকালের বিতরণ কার্যক্রম স্থগিত করেছে কৃষি অফিস।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর