× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৬ মে ২০২১, রবিবার, ৩ শওয়াল ১৪৪২ হিঃ

বড়লেখায় সাংবাদিককে হত্যার হুমকি

বাংলারজমিন

বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি
২২ এপ্রিল ২০২১, বৃহস্পতিবার

দৈনিক মানবজমিন ও বাংলা টিভি’র বড়লেখা উপজেলা প্রতিনিধি মো. রুয়েল কামালকে হত্যার হুমকি দিয়েছে তাজুল ইসলাম নামে এক কাঠ ব্যবসায়ী। হুমকিদাতা জুড়ী উপজেলার জাঙ্গীরাই গ্রামের মৃত আব্দুল হাইয়ের ছেলে। হুমকির ঘটনায় সাংবাদিক মো. রুয়েল কামাল গত মঙ্গলবার বিকালে জুড়ী থানায় ওই যুবকের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরি করেছেন। জানা গেছে, গত ৩রা এপ্রিল দৈনিক মানবজমিন পত্রিকায় ‘চাঁদা না পেয়ে ১০ লাখ টাকার গুঁড়ি নিয়ে গেলেন আওয়ামী লীগ নেতা’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এর জের ধরে ওই আওয়ামী লীগ নেতার অনুসারী তাজুল ইসলাম বিভিন্নভাবে সাংবাদিক মো. রুয়েল কামালকে হুমকি-ধমকি দিতে থাকে। বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে হাত-পা কেটে ফেলার হুমকি দেয়। জুড়ীতে গেলে প্রাণে মেরে ফেলবে বলে শাসায়। এ ছাড়া অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে।
হুমকি-ধমকির ঘটনায় গত মঙ্গলবার বিকালে রুয়েল কামাল হুমকিদাতার বিরুদ্ধে জুড়ী থানায় জিডি করেছেন। জুড়ী থানার ওসি (তদন্ত) আবুল কালাম গতকাল দুপুরে জানান, মোবাইল ফোনে মানবজমিনের সাংবাদিককে হুমকির কল রেকর্ড শুনেছেন। তদন্ত চলছে, যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Mahfujul islam
২২ এপ্রিল ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১২:২২

নিউজটি পুরোপুরি সঠিক নয় । নিউজ দাতা জনাব রুবেল কামাল বড়লেখা উপজেলার মানবজমিনের প্রতিনিধি হয়ে জুড়ী উপজেলার বিভিন্ন গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের নামে বিভিন্নভাবে সত্য মিথ্যা রিপোর্ট করে জুড়ী উপজেলা প্রতিনিধির নামে চালিয়ে দেয় । উল্লেখিত তাজুল ইসলাম জুড়ী উপজেলা মানবজমিনের প্রতিনিধি ফখরুল ইসলামের ছোট ভাই , ঘটনার দিন জুড়ী উপজেলা প্রতিনিধি ইসলাম বড়লেখা উপজেলা প্রতিনিধি রুহেল কামালের কাছে উনাকে না জানিয়ে উনার নামে রিপোর্ট দেওয়ার কারণ জানতে চাইলে উনাদের মধ্যে বাক-বিতণ্ডা সৃষ্টি হয় । এবং রুহেল কামাল ফখরুল ইসলামকে গালাগালি করেন। ওই সময় ফখরুল ইসলামের ভাই ওই জায়গায় উপস্থিত থাকায় বড় ভাইয়ের কাছ থেকে ফোনটি নিয়ে উনিও পাল্টা জবাব দেন। এখন রুহেল কামাল এই ঘটনাটিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করে সংবাদ প্রকাশের জেরে হুমকিরূপে পত্রিকায় প্রকাশিত করে । জনসাধারণের কাছে প্রশ্ন একজন সাংবাদিক কি করে অন্য উপজেলার সংবাদ ওই উপজেলা প্রতিনিধি কে না জানিয়ে উনার নামে চালিয়ে দেয় । একজন যোগ্য সাংবাদিকের কাজে কখনোই এমন হওয়া উচিত নয়। সর্বোপরি উক্ত ঘটনা নিয়ে যেহেতু জিডি করা হয়েছে বিষয়টা আইনানুগভাবে কতৃপক্ষ দেখবে ।

অন্যান্য খবর