× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৫ মে ২০২১, শনিবার, ২ শওয়াল ১৪৪২ হিঃ

রূপগঞ্জে কৃষকের ধান কেটে দিল ছাত্রলীগ

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, রূপগঞ্জ থেকে
২২ এপ্রিল ২০২১, বৃহস্পতিবার

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে কৃষকের দুই বিঘা জমির ধান কেটে দিয়েছে উপজেলার তারাবো পৌর ছাত্রলীগ। কৃষকদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার বাস্তবায়ন ঘটাতে মন্ত্রী গাজীর নির্দেশে তারা এই কার্যক্রম করেন। বৃহস্পতিবার উপজেলার তারাবো পৌরসভার নোয়াগাঁও মাঠে ছাত্রলীগ ধান কেটে বাড়িতে পৌছে দেয়।

উপজেলার তারাবো পৌরসভা ছাত্রলীগের সভাপতি আওলাদ হোসেন জানান, লকডাউনের তৃতীয় মেয়াদে শ্রমিক ও অর্থ সংকটের কারণে দুই বিঘা জমির পাকা ধান কাটতে পারছিলেন না উপজেলার তারাবো পৌরসভার নোয়াগাঁও এলাকার কৃষক রবিউল ইসলাম। ক্ষেতেই ধান নষ্ট হওয়ার উপক্রম হচ্ছিল। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে পৌরসভার ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা সেখানে ছুটে যান। আমার নেতৃত্বে দপ্তর সম্পাদক ফাহাদ উদ্দিন ২নং ওয়ার্ড সভাপতি মাসুদ প্রধান, সাধারণ সম্পাদক রাশিদুল ইসলাম,১ নং ওয়ার্ড সভাপতি আব্দুল আল-মামুন, সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক শরিফুল ইসলাম ও হৃদয় এবং যুগ্ম সম্পাদক মাসুমসহ প্রায় ২৫ জন নেতাকর্মী কৃষক রবিউলের দুই বিঘা জমির ধান কেটে মাড়াই করে দেন।

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা পাকা ধান কেটে দেয়ায় কৃষক রবিউল অনেকটাই আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। তিনি বলেন, লকডাউনের মধ্যে ধান কাটার উপযুক্ত হয়। লকডাউনে শ্রমিক সংকটের কারণে পাকাধান কাটতে পারছিলাম না।
এছাড়াও এলাকায় যে শ্রমিক পাওয়া যায় তাদের মজুরি খুব বেশি। ক্ষেতের ধান পাকার পরও তা কাটতে না পারায় কিছুটা ক্ষতির শঙ্কায় ছিলাম। আমার এমন অসহায়ত্বের কথা শুনে ছাত্রলীগ নেতা আওলাদ ভাই আরও নেতাকর্মী সঙ্গে নিয়ে এসে টাকা-পয়সা ছাড়াই আমার দুই বিঘা ক্ষেতের ধান কেটে দেন। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা যেভাবে আমার ধান কাটতে সাহায্য করেছেন তা কখনও ভুলব না।

ছাত্রলীগ নেতা আওলাদ বলেন, এই দূর্যোগকালীন সময় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কৃষকদের পাশে দাঁড়ানোর যে নির্দেশনা দিয়েছেন তার বাস্তবায়ন ঘটাতেই পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতিক) আমাদের নির্দেশ দেন। মন্ত্রীর নির্দেশে আমরা কৃষক রবিউলের পাশে দাঁড়িয়েছি। আমাদের এই কার্যক্রম আগামীতেও অব্যাহত থাকবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর