× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৫ মে ২০২১, শনিবার, ২ শওয়াল ১৪৪২ হিঃ

মাকে ফেরানোর ব্যর্থ চেষ্টা

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ সপ্তাহ আগে) মে ৩, ২০২১, সোমবার, ১২:৪৪ অপরাহ্ন
সর্বশেষ আপডেট: ১০:৪০ পূর্বাহ্ন

ভারতের উত্তর প্রদেশের মহারাজ শেহেলদেব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের দৃশ্য। একটি স্ট্রেচারে নিষ্প্রাণ মায়ের দেহে প্রাণ ফেরানোর আপ্রাণ চেষ্টা করছেন দুই বোন। মায়ের মুখের সঙ্গে মুখ লাগিয়ে শ্বাস-প্রশ্বাস সচল করার চেষ্টা করছেন তারা। এ দৃশ্য ভিডিওতে ধারণ করার পর তা শনিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়। ভিডিওতে আশপাশের মানুষকে অক্সিজেন সঙ্কট এবং হাসপাতালে জনবলের অভাব আছে বলে অভিযোগ করতে শোনা যায়। এ খবর দিয়েছে সরকারি বার্তা সংস্থা পিটিআই। যদি কোনো ব্যক্তির ফুসফুস অকেজো হয়ে যায়, তিনি অচেতন হয়ে পড়েন তখন তার দেহে কৃত্রিশ শ্বাসপ্রশ্বাসের জন্য মুখে মুখ লাগিয়ে ফুসফুসে বাতাস প্রবেশ করানো হয়। এতে অনেক নিষ্প্রাণ দেহে প্রাণের সঞ্চার হয়।
ওই হাসপাতালটির জরুরি বিভাগের মেডিকেল অফিসার এহতেশাম আলি বলেছেন, নিঃশ্বাস যায় যায় এমন অবস্থায় ওই রোগীকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছিল। তার কাছে চিকিৎসক পৌঁছামাত্র তিনি মারা যান। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট শম্ভু কুমার ও মেডিকেল কলেজটির সিনিয়র চিকিৎসকরা রোগীর কাছে যান এবং তাকে পরীক্ষা করে দেখেন। মহারাজা সুহেলদেব মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ একে সাহনি রোববার বলেছেন, যখন ওই রোগীকে জরুরি বিভাগে নেয়া হয়, তখন তার পরিবার দাবি করেছে যে, তিনি মৃত্যুশয্যায় আছেন। চিকিৎসকরা তার চিকিৎসা শুরু করতেই তিনি মারা যান। এই রোগীর যে দুই মেয়ে তার মুখের সঙ্গে মুখ লাগিয়ে মায়ের দেহে শ্বাস-প্রশ্বাস চালু করার চেষ্টা করেছিলেন তাদের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। একে সাহনি বলেছেন, তার হাসপাতলে অক্সিজেনের কোনো সঙ্কট নেই।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
রাশেদ
৩ মে ২০২১, সোমবার, ৮:৫৩

নিষ্প্রাণ দেহে প্রাণ সঞ্চার এর আকৃতি যেতে নাহি দিব হায় তবু যেতে দিতে হয় চলে যায়,শুধু রয়ে যায় মানবতার মহিমা

Nasir Uddin
৩ মে ২০২১, সোমবার, ৯:৫২

maa, aha maa this is real love yes , this is real

Kayes
৩ মে ২০২১, সোমবার, ১:১২

Day by day thousands are dying. And yet some are busy with making viral videos !!!

অন্যান্য খবর