× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২০ জুন ২০২১, রবিবার, ৮ জিলক্বদ ১৪৪২ হিঃ

‘রাধে’ থেকে প্রাপ্ত আয়ের অংশ দান করা হবে করোনার ত্রাণে

বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক
৬ মে ২০২১, বৃহস্পতিবার

১৩ই মে মুক্তি পাচ্ছে সালমান খান অভিনীত ‘রাধে – ইওর মোস্ট ওয়ান্টেড ভাই’। সিনেমা হল এবং জি ফাইভ এর পে পার ভিউ সার্ভিস ‘জি পেক্স’ এ মুক্তি পাবে ‘রাধে’। সারা দেশের করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ছবির প্রযোজক সংস্থা জি এন্টারটেনমেন্ট এন্টারপ্রাইজ এবং সালমান খান ফিল্মস জানিয়েছেন, ছবি থেকে প্রাপ্ত আয়ের একটি অংশ করোনার ত্রাণে কাজে লাগাবেন। ছবির নির্মাতারা বলেছেন, গিভ ইন্ডিয়া মঞ্চের অংশীদার হিসাবে প্রয়োজনীয় চিকিৎসার সরঞ্জাম দান করবেন তারা। এছাড়া জি এবং এস কে এফ এই বিশাল বিনোদন ইন্ডাস্টির শ্রমিকদের সাহায্য করবেন যারা এই করোনা মহামারীতে মারাত্মক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। জি এর একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, আমাদের গোটা দেশ একটা বিপর্যস্ত পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। তাই একজন দায়বদ্ধ কর্পোরেট সংস্থা হিসাবে এই কঠিন লড়াইয়ে সাধারণ মানুষের পাশে থাকার জন্যে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। দর্শকদের কেবল বিনোদন দেওয়াটাই আমাদের একমাত্র উদ্দেশ্য নয়, ব্যবসায়িক লাভের বাইরে বেড়িয়ে এই মুহুর্তে দেশবাসীর পাশে দাঁড়াতে চাই আমরা।
এই কঠিন সময়ে দেশজুড়ে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে অর্থনৈতিক দিক থেকে সাহায্য প্রদানের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। আমরা আশা রাখছি ‘রাধে মুক্তি পাওয়ার পর সেখান থেকে যে পরিনাম অর্থ আমরা করোনা ত্রানে দান করব, তা বহু মানুষের সহায়তা করতে পারবে। সালমান খান ফিল্মস থেকে এই বিষয়ে জানানো হয়েছে, করোনার বিরুদ্ধে লড়ছে গোটা দেশ। এই লড়াইয়ে আমাদের সংস্থার পক্ষ থেকে নেওয়া এই মহৎ উদ্যোগ নিতে পেরে আমারা ভীষণই খুশি। গত বছর করোনার সময় থেকেই এই লড়াইয়ে আমার মানুষের পাশে ছিলাম। এখনও আছি। করোনায় গোটা দেশ তথা বিশ্ব ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিলাম একটা সম্পূর্ন তৈরি হয়ে যাওয়া ছবি এভাবে আটকে রাখা ঠিক হবে না। সিনেমা হল এবং সঙ্গে জি প্লিক্স এর মতন একটি প্ল্যাটফর্মে এই ছবি মুক্তি পাওয়ার ফলে ছবি থেকে প্রাপ্ত আয়ের একটি অংশ আমরা মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দান করাটাই উপযুক্ত হবে বলে মনে করেছি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর