× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৯ জুন ২০২১, শনিবার, ৮ জিলক্বদ ১৪৪২ হিঃ

কঙ্গনাকে স্বাগত জানাল ‘কু’ অ্যাপ

বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক
৬ মে ২০২১, বৃহস্পতিবার

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে লাগাতার বিষোদগার করে টুইটার থেকে কার্যত বিতাড়িত হয়েছেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। টুইটারের নিয়ম ভঙ্গ করার জন্য তার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। সেই সুযোগকে কাজে লাগাতে চাইছে ভারতীয় মাইক্রো ব্লগিং সাইট ‘কু’। কঙ্গনার পুরনো পোস্ট শেয়ার করে ‘নিজের ঘরে’ তাকে স্বাগত জানিয়েছেন কু অ্যাপের প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও অপ্রমেয় রাধাকৃষ্ণ। এর আগে বাংলায় ভোটের ফলপ্রকাশের দিন টুইটারে বাংলাদেশি আর রোহিঙ্গাদের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সবচেয়ে বড় শক্তি হিসেবে ব্যাখ্যা করেছিলেন বি-টাউনের ‘কন্ট্রোভার্সি ক্যুইন’। শুধু তাই নয়, কলকাতাকে কাশ্মীরের সঙ্গেও তুলনা করেন কঙ্গনা। টুইটারে তিনি লেখেন, বাংলাদেশি আর রোহিঙ্গারা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সবচেয়ে বড় শক্তি। যা ট্রেন্ড দেখছি তাতে বাংলায় আর হিন্দুরা মেজরিটিতে নেই এবং তথ্য অনুযায়ী গোটা ভারতবর্ষের তুলনায় বাংলার মুসলিমরা সবচেয়ে গরীব আর বঞ্চিত।
ভালো, আরেকটা কাশ্মীর তৈরি হচ্ছে। এখানেই থামেননি তিনি। ফল প্রকাশের পর আরও কিছু টুইট করেন। তার পরেই তার অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড করে টুইটার। প্রসঙ্গত কয়েক মাস আগে এই ভারতীয় অ্যাপ ‘কু’ আত্মপ্রকাশ করে। অনেক বলিউড তারকা এই ভারতীয় অ্যাপে অ্যাকাউন্ট খোলেন। তাদের মধ্যে ছিলেন কঙ্গনা রানাউতও। ১৬ই ফেব্রুয়ারি কঙ্গনা সেখানে একটি পোস্ট করেন। যাতে তিনি কু-কে নিজের ঘর (ভারতীয় অ্যাপের কারণে) বলে বর্ণনা করেন। এবার সেই পোস্টের স্ক্রিন শট শেয়ার করে অপ্রমেয় লিখেছেন, কঙ্গনা জি, এটা আপনার নিজের ঘর, এখানে গর্বের সঙ্গে আপনি আপনার কথা সবাইকে বলতে পারেন। কু-এর আর এক সহপ্রতিষ্ঠাতা মায়াঙ্ক বিদওয়াতকাও কঙ্গনাকে স্বাগত জানিয়েছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
nasir uddin
৭ মে ২০২১, শুক্রবার, ৮:১৪

To Manob Zamin, please don't cover this whore anymore. She smells bad.

Shamsun Naher
৭ মে ২০২১, শুক্রবার, ৭:৪৭

The news media of Bangladesh is spreading propaganda about what a rude person like Kangana says. I don’t think there is any difference between Kangana and Taslima. Because both of them are women with a bad character. কঙ্গনার মতো একটা বেয়াদব কি বলে সেটা নিয়ে বাংলাদেশের সংবাদ মাধ্যমগুলো ফলাও করে প্রচার করছে । কঙ্গনা তসলিমা মধ্যে কোন পার্থক্য আছে বলে আমি মনে করি না । কারণ দুজনেই একটা নষ্ট চরিত্রের মহিলা ।

abdul barek
৬ মে ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৫:৫৬

শয়তান,শয়তান চিনে

jashim uddin khan
৬ মে ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৩:৫৬

কন্ট্রোভার্সি ক্যুইন কঙ্গনা-বাংলায় ভোটের ফলপ্রকাশের দিন টুইটারে বাংলাদেশি আর রোহিঙ্গাদের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সবচেয়ে বড় শক্তি হিসেবে ব্যাখ্যা করেছিলেন বি-টাউনের ‘কন্ট্রোভার্সি ক্যুইন’। শুধু তাই নয়, কলকাতাকে কাশ্মীরের সঙ্গেও তুলনা করেন কঙ্গনা। টুইটারে তিনি লেখেন, বাংলাদেশি আর রোহিঙ্গারা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সবচেয়ে বড় শক্তি। যা ট্রেন্ড দেখছি তাতে বাংলায় আর হিন্দুরা মেজরিটিতে নেই এবং তথ্য অনুযায়ী গোটা ভারতবর্ষের তুলনায় বাংলার মুসলিমরা সবচেয়ে গরীব আর বঞ্চিত। ভালো, আরেকটা কাশ্মীর তৈরি হচ্ছে। ওনার কথার মাঝে কিছু সত্যতা আছে। যেমন-ক) বাংলায় আর হিন্দুরা মেজরিটিতে নেই, খ) গোটা ভারতবর্ষের মুসলিমরা সবচেয়ে গরীব আর বঞ্চিত। টিক তেমনিভাবে বাংলার কোন এক মুমিনুল যদি কঙ্গনার কথা গুলা নিজমুখে বলে তাতে কি খুব ভুল হবে?

অন্যান্য খবর