× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৬ জুন ২০২১, বুধবার, ৫ জিলক্বদ ১৪৪২ হিঃ

নেগেটিভ হলেই মাঠে নামবেন লঙ্কা ফেরতরা

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার
৯ মে ২০২১, রবিবার

৫ই মে শ্রীলঙ্কা থেকে ঢাকায় ফিরেই গৃহবন্দি বাংলাদেশ টেস্ট দল। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশ মতো ১৪ দিন থাকতে হবে হোম কোয়ারেন্টিনে। আগামী  ১৬ই মে ওয়ানডে সিরিজ খেলতে ঢাকায় আসবে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট দল। এরই মধ্যে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ২৩ সদস্যের প্রাথমিক দল ঘোষণা করেছে। যেখানে টেস্ট দলের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার রয়েছেন। দেশে ফিরে ক্যাম্পে যোগ দেয়ার কথা থাকলেও গতকাল পর্যন্ত পারেননি। তবে গতকাল আশার সংবাদ শুনিয়েছেন বিসিবি’র প্রধান নির্বাহী নিজামুদ্দিন চৌধুরী সুজন। এখন আর টাইগারদের দুই সপ্তাহ গৃহবন্দি থাকতে হচ্ছে না।
করোনা  টেস্টে নেগেটিভ হলেই যোগ দিতে পারবেন অনুশীলনে। নিজামুদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘আমরা আশা করছি আজকালের মধ্যে জাতীয় ক্রিকেট দলের যারা শ্রীলঙ্কা থেকে এসেছেন তারা একটা করোনা টেস্ট দেবেন, নেগেটিভ হওয়ার পর তারা হয়তো জাতীয় দলের সঙ্গে যোগ দেবেন। এখন তাদের কোয়ারেন্টিন পুরো করতে হচ্ছে না। আমরা সেটাই চেষ্টা করছি। আমাদের প্রাথমিক লক্ষ্য ছিল জাতীয় দলের যারা আছেন, শ্রীলঙ্কা সফরে। তাদের অনুশীলনের আওতায় নিয়ে আসা। আজকেই একটা গ্রিন সিগন্যাল পেয়েছি।’
শ্রীলঙ্কা ফেরত টাইগারদের কোয়ারেন্টিন শিথিলে শুরু থেকে বেশ আশাবাদী ছিলেন বিসিবি মেডিক্যাল বিভাগের প্রধান চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরী। তিনি জানিয়েছিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তর  কোয়ারেন্টিনে ছাড় দিতে ইতিবাচক ছিলেন। মৌখিকভাবে তারা সম্মত হলেও আজ রোববার লিখিতভাবেই অনুমতি দিবে অধিদপ্তর। তিনি বলেন, ‘আমরা বেশ আশাবাদী ছিলাম যে শ্রীলঙ্কা থেকে দেশে ফেরা ক্রিকেটারদের অনুশীলনে অনুমোদন পাওয়া যাবে। তারা (স্বাস্থ্য অধিদপ্তর) বেশ ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছেন। যেহেতু শুক্রবার ও শনিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বন্ধ ছিল তাই কাল (আজ) রোববার আমরা লিখিত অনুমোদন পাবো। তাহলে ক্রিকেটারদের অনুশীলনে বাধা থাকবে না। এরপর নিয়ম মেনে করোনা টেস্ট করেই মাঠে ফিরতে হবে শ্রীলঙ্কা থেকে আসা ক্রিকেটারদের।’
এবার সার্কভূক্ত দেশগুলোর করোনা পরিস্থিতির অবনতি ঘটেছে। বিশেষ করে প্রতিবেশি দেশ ভারতের অবস্থা ভয়াবহ। সেখানে আক্রান্ত দিনে চার লাখ ছুঁয়েছে। মৃত্যু সংখ্যা ছাড়িয়েছে দিনে প্রায় চার হাজার। বাংলাদেশের পরিস্থিতি এতটা ভয়াবহ না হলেও টালমাটাল। ভয়-শঙ্কায় সারাদেশ। তাই ভারত থেকে আইপিএল খেলে দেশে ফেরা সাকিব আল হাসান ও মোস্তাফিজুর রহমানকে ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। বিসিবি তাদের কোয়ারেন্টিনের মেয়াদ কমানোর আবেদন করলেও তা প্রত্যাখ্যাত হয়। এই দুই জনও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজে বাংলাদেশ দলের গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার। ২৩শে মে  সিরিজের প্রথম ম্যাচ মাঠে গড়ানোর কথা। আর মোস্তাফিজ ও সাকিব মাঠে ফিরতে পারবেন ২১শে মে। তাই আবারো তাদের কোয়ারেন্টিন শিথিলে আবেদন করবে বিসিবি। এ বিষয়ে বিসিবির সিইও বলেন, ‘দেখুন একটা জিনিসই আমরা কনফিউজড হয়ে আছি সবাই। এই ধরনের বিষয় যখন আসছে সেটা অনেকে অন্যভাবে ইন্টারপ্রেট করছে। সেক্ষেত্রে আমাদের বক্তব্য হচ্ছে এটা কিন্তু স্পেশাল বা প্রিভিলাইজড কেউ না। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বা বিশ্বের খেলাধুলা বলেন আলাদা প্রটোকল আছে। আমাদের দেশের যে প্রটোকল আছে সেগুলো কিন্তু সাধারণ মানুষের জন্য নয়।’ বিসিবির প্রধান চিকিৎসক সাকিব-মোস্তাফিজকে নিয়ে বলেন, ‘ভারত থেকে ফেরাদের নিয়ে বিষয় একটু ভিন্ন। এখানে সরকারের একটা গাইডলাইন আছে তা সবার মানতে হয়। সাকিব ও মোস্তাফিজের জন্য বিসিবি কথা বলছে। পরিস্থিতি বুঝেই তাদের নিয়ে সিদ্ধান্ত হবে।’  

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর