× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২০ জুন ২০২১, রবিবার, ৮ জিলক্বদ ১৪৪২ হিঃ

‘খালেদা জিয়ার অঘটন ঘটলে দায় সরকারের’

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার
(১ মাস আগে) মে ৯, ২০২১, রবিবার, ৮:১২ অপরাহ্ন

সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেছেন, খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার বিষয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের দেয়া মতামত বে-আইনি। এ আইনে এমন কোনো বিধান নেই যে কোনো দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি বিদেশে যেতে পারবে না। এ আইন করাই হয়েছে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের জন্য। খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রে কোনো অঘটন ঘটে গেলে তার দায়ভার সরকারের। রোববার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় এমন প্রতিক্রিয়া জানান তিনি।
তিনি বলেন, আইনে ব্যাপক ক্ষমতা দেয়া হয়েছে নির্বাহী কর্মকর্তাদেরকে। সেক্ষেত্রে সরকার একটা  ঠুনকো আদেশ দিয়ে বলছেন, যে আইনের বিধান নাই। তিনি প্রশ্ন তোলেন, বিধান নাই এ কথাটা কোথায় আছে।
৪০১ এ বিধান আছে কি বিধান নাই। এটা তো বলা হয় নাই।
তিনি বলেন, সরকার একটা কন্ডিশন দিতে পারতো, যে হা, তোমার এই জটিল অসুখের জন্যে মেডিকেল টিম ওপেনিয়ন দিয়েছে তোমার বিদেশে চিকিৎসার দরকার। চিকিৎসার পরে তোমাকে দেশে ফেরত আসতে হবে। এ ছাড়া চিকিৎসার জন্যে বিদেশে যেতে দেয়া হবে না। আমি মনে করি বেগম খালেদা জিয়া অত্যন্ত জনপ্রিয় নেত্রী, তিন তিন বারের প্রধানমন্ত্রী। সরকারের এই দায়ভারটা নেয়া উচিত হবে না। যদি একটা অঘটন ঘটে এর সম্পূর্ণ দায়িত্ব সরকারকে নিতে হবে।
তিনি আরো বলেন, আর একটা জিনিস মনে রাখতে হবে। তার মামলা কিন্তু এখনো চূড়ান্ত ফয়সালা হয়নি। বিচারিক আদালত তাকে সাজা দিয়েছে, সেটার আপিল পেন্ডিং আছে। এমনও হতে পারে আপিলে খালাসও পেয়ে যেতে পারেন তিনি। সে ক্ষেত্রে আমি এখনো মনে করি সরকার এতো বড় দায়ভার নিবেন না। তাকে চিকিৎসার সুযোগ দেয়া উচিত।
খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, ৪০১ ধারাটা ফৌজধারী  কার্যবিধির এটা ব্যাপক আইন। এখানে নির্বাহী কর্তৃপক্ষকে ব্যাপক ক্ষমতা দেয়া হয়েছে। যেকোনো সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে সাজা নির্বাহী আদেশে মওকুফ করা যাবে, কমানো যাবে। ম্যাডাম খালেদা জিয়াকে জেল থেকে বের করা হয়েছিল তার সাজা স্থগিত করে চিকিৎসার জন্য। সেই চিকিৎসার সুযোগ তিনি পান নি। এখন তার অবস্থা অত্যন্ত জটিল বলে আমরা জানতে পেরেছি। সেক্ষেত্রে সরকার আইনের বিধান নাই, এই যে কথাটা বলছেন এটা সঠিক না। আইনের ব্যাখ্যাটা একটু মানবিক ভাবে করতে হবে এবং ওখানে কোন খানে লেখা নাই সাজা প্রাপ্ত আসামী বিদেশ চিকিৎসা দিতে পারবে না। এখানে ব্যাপক পাওয়ার এটা ওয়াইড করতে হবে বলেও দাবি করেন তিনি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
jashim uddin khan
১০ মে ২০২১, সোমবার, ৬:২১

চিকিৎসার উদ্দেশ্যে বিদেশে যাত্রা রোধ করতে হবে। যার টাকা আছে সে বিদেশে গিয়ে চিকিৎসা করবে আর গরীবেরা বিনা চিকিৎসায় মরবে তা হতে পারে না। সে যেই হউক না কেন চিকিৎসার জন্য বিদেশ যেতে পারবে না । প্রয়োজনে বিদেশ থেকে ডাক্তার নিয়ে আসতে পারে। সরকারি খরচে বিদেশে চিকিৎসার জন্য যারা গিয়েছে তাদেরকে সরকারি টাকা ফেরত দিতে হবে।এই টাকা জনগনের টাকা। জনগনের টাকা দিয়ে চিকিৎসা করবে তা হবে না। আর খালেদা জিয়া শুধু কেন জিয়া পরিবারকে সমূলে উচ্ছেদ করার জন্য হাসিনা ক্ষমতা আখড়ে ধরে রয়েছে। হাসিনাকে বুঝতে হলে মতিয়র রহমান রেন্টুর লেখা “আমার ফাসিঁ চায়” বইখানা না পড়তে হবে। দূখের বিষয় বইখানা নিষিদ্ধ করেছিল খালেদা জিয়া ক্ষমতায় থাকা কালীন।

MD SELIM RAHMAN
১০ মে ২০২১, সোমবার, ১১:১৫

Is there anything written in the law? This is your failure, and you failed to proof that she is not guilty!!

saad ahmed
১০ মে ২০২১, সোমবার, ৬:৪৩

that will be BNPS responsibility not government

saad ahmed
১০ মে ২০২১, সোমবার, ৬:৪৩

that will be BNPS responsibility not government

কাজি
৯ মে ২০২১, রবিবার, ৪:৪৪

কিচ্ছু হবে না। তিনি অসুস্থতা কেটে উঠেছেন। বিদেশে নিশ্চয়তা নাই মৃত্যু পথ যাত্রী কাউকে তারা বাঁচতে পারে। আমাদের অনেক আত্মীয় কে বাঁচতে পারে নি ঐ সব হাসপাতালে। কেউ আলৌকিক ক্ষমতার অধিকারী নন।

মোস্তফা সুলতান
৯ মে ২০২১, রবিবার, ৯:২০

প্রবাদে আছে মরা মেরে খুনের দায় নেওয়া। বিষয় টা হয়তো এরূপ ই।

অন্যান্য খবর